ওয়ালটন ফ্রিজ

ওয়ালটন ফ্রিজের দাম ২০২১ !

আসসালামু আলাইকুম সম্মানিত সাইট ভিজিটর ভাই ও বোনেরা আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন। আপনাদের সামনে একটি পোস্ট নিয়ে হাজির হয়েছি । বাংলাদেশের পণ্য ওয়ালটন ফ্রিজ এর দাম  সম্পর্কে আপনাদের বিস্তারিত জানাবো ।

আমাদের দেশের বেশিরভাগ মানুষের আয় মধ্যম কিংবা নিম্ন আয়। যার কারণে , বেশির ভাগ মানুষের পক্ষে বিদেশি ব্র্যান্ডের ফ্রিজগুলো অতিরিক্ত দাম দিয়ে ক্রয় করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। তাই সকলের কথা চিন্তা করে ওয়ালটন ফ্রিজ বর্তমানে বাজারের একটি আদশ ফ্রিজ ।

কারণ , ওয়ালটন আমাদের দেশি ব্র্যান্ড হওয়ারর ফলে তারা দেশের মানুষের কথা বিবেচনা করে কমদামের মধ্যে সেরা ফ্রিজটা তৈরি করে থাকে। অনেক মানুষ মনে করে বাংলাদেশি ব্র্যান্ড হওয়ার কারণে গুনগত মন খারাপ হতে পারে । কিন্তু তাদের ধারণা সম্পূর্ণ ভুল।

ওয়ালটন ফ্রিজের দাম ২০২১

ওয়ালটনের যত ধরনের প্রোডাক্ট রয়েছে তার মধ্যে ওয়ালটন ফ্রিজ হচ্ছে ওয়ালটনের সবচাইতে ভালো মানের প্রোডাক্ট। ওয়ালটন ফ্রিজের গুনগত মান, আকর্ষণী ডিজাইন, সহজ সার্ভিস ও দীর্ঘ স্থায়িতার কারনে দেশের মানুষের মন জয় করে নিয়েছে। এখন আমরা ভালোমানের ১০ টি ওয়ালটন ফ্রিজের দাম আপনাদের সামনে তুলে ধরব—

ওয়ালটন ফ্রিজ ৮ সেফটি দাম

বাজারের যত সাইজের ফ্রিজ আছে তন্মধ্যে ৮ সেফটি এর ফ্রিজ হচ্ছে সবচাইতে ছোট। সাধারণত খুব অল্প পরিমানে জিনিসপত্র রাখার কাজে ব্যবহার করার জন্য ওয়ালটন ৮ সেফটি এর ফ্রিজ কেনা হয়। আপনার যদি ছোট ফ্রিজ এর প্রয়োজন হয়ে তাহলে এ ধরনের ছোট ফ্রিজ কিনতে পারেন। ওয়ালটন এর ৮ সেফটির ফ্রিজ মাত্র ১০ হাজার টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। আশাকরি ফ্রিজটি আপনার পছন্দ হবে। বিস্তারিত নিচে দেখুন ।

১। ওয়ালটন WFO-1A5-RXXX-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ১৪৩০০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ১১৫ লিটার।
  • ওজনঃ ২৬ কেজি।
  • কালারঃ গোল্ড সিলভার ও অফ-হোয়াইট সিলভার।
সাশ্রয়ি মূল্যের ওয়ালটন ফ্রিজের মধ্যে এই মডেলের ওয়ালটন ফ্রিজ হচ্ছে সবচাইতে সেরা। আপনি মাত্র ১৪ হাজার টাকায় পেয়ে যাচ্ছেন ১১৫ লিটার ক্যাপাসিটি সমৃদ্ধ একটি ভালোমানের ওয়ালটন ফ্রিজ। আপনি যদি কম দামের মধ্যে ফ্রিজ কিনতে চান তাহলে ওয়ালটনের এই ফ্রিজটি হবে আপনার জন্য সবচাইতে পারফেক্ট একটি ফ্রিজ। আপনার পরিবার ছোট/সিংগ্যাল ফ্যামেলি হয়ে থাকলে আপনি ওয়ালটনের এই মডেলের ফ্রিজটি ক্রয় করতে পারেন।
ওয়ালটন WFO-1A5-RXXX-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ৯০ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৪৯ সেন্টিমিটার।
  • ফাস্টার কুলিং স্পিড।
  • নেনো সিলভার টেকনোলজি।
  • ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।
  • প্রিভেন্ট বেড ডোর।
  • ইকোলজিক্যাল সেইফ।

ওয়ালটন ফ্রিজ ১৪ সেফটি দাম

সাধারণত মাঝারি কাজের প্রয়োজনে ১৪ সেফটি থেকে ১৮ সেফটি এর ফ্রিজ এবং বেশি পরিমান জিনিসপত্র রাখার জন্য ২০ সেফটি থেকে ২৮ সেফটি এর ফ্রিজ ব্যবহার হয়ে থাকে। এখানে আমরা ১৪ সেফটি, ১৬ সেফটি, ১৮ সেফটি ও ২০ সেফটি এর বেশ কিছু ফ্রিজ সংগ্রহ করেছি। আশা করছি ফ্রিজগুলো আপনার পছন্দ হবে।

২। ওয়ালটন WFD-1B6-GDEL-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ১৯৫০০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ১৩২ লিটার।
  • ওজনঃ ৪২ কেজি।
  • কালারঃ গোলাপী ও নীল।
এই মডেলের ওয়ালটন ফ্রিজটি আমি নিজে ব্যবহার করেছি। ফ্রিজের আকর্ষণীয় কালার ও ডিজাইনের কারনে মূলত আমি ওয়ালটনের এই ফ্রিজটি ব্যবহার করছি। ফ্রিজটি আপনার ডাইনিং রুমে রাখলে আপনার রুমের সুন্দর্য্য অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে। তাছাড়া মাঝারি সাইজের ফ্রিজ হওয়ার কারনে ঘরের যে কোন জায়গাতে রাখা সম্ভব হবে।
ওয়ালটন WFD-1B6-GDEL-XX ফ্রিজের দাম

ফ্রিজের স্পেসিফিকেশন

  • দৈর্ঘ্যঃ ৫১ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ১৩২ সেন্টিমিটার।
  • ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।
  • ফাস্টার কুলিং স্পিড।
  • ম্যাজিক্যাল নেনো সিলভার টেকনোলজি।
  • এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট।
  • ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।
  • প্রিভেন্ট বেড ডোর।
  • ইকোলজিক্যাল সেইফ।

৩। ওয়ালটন WFD-1F3-RXXX-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ২১১০০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ১৭৬ লিটার।
  • ওজনঃ ৪৬ কেজি।
  • কালারঃ সিলভার ব্লাক।
অসাধারণ সিলভার ব্লাক কালারের ওয়ালটনের ফ্রিজটি আপনাদের সবার কাছে পছন্দ হবে। কারণ এই ফ্রিজটির ফিনিশিং খুবই মসৃণ। তাছাড়া মাত্র ২১ হাজার টাকায় আপনি পেয়ে যাচ্ছেন ১৪৬ লিটার ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন মাঝারি সাইজের একটি ফ্রিজ। এই ফ্রিজের ভিতরের ডিজাইনও বেশ চমৎকার করা হয়েছে। আপনি বাজেট কম হলে এই ফ্রিজটি কিনতে পারেন।
ওয়ালটন WFD-1F3-RXXX-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৬০ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৫১.২০ সেন্টিমিটার।
  • ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।
  • ফাস্টার কুলিং স্পিড।
  • ম্যাজিক্যাল নেনো সিলভার টেকনোলজি।
  • এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট।
  • ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।
  • প্রিভেন্ট বেড ডোর।
  • ইকোলজিক্যাল সেইফ।

৪। ওয়ালটন WFA-2A3-GDEL-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ২৫৩০০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ২১৩ লিটার।
  • ওজনঃ ৪৫ কেজি।
  • কালারঃ নীল ও গোলাপি।
এই ফ্রিজের দুটি কালার রয়েছে। একটি হচ্ছে নীল রংয়ের এব অন্যটি গোলাপী। এই মডেলের ওয়ালটন ফ্রিজের নীল রংয়ের ভেরিয়েন্ট আমার বেশ পছন্দের একটি ফ্রিজ। গত বছরে আমার বাসায় ব্যবহারের জন্য আমি ফ্রিজটি কিনেছিলাম। বর্তমানে প্রায় এক বছরের বেশি সময় অতিবাহিত হওয়া সত্বেও ফ্রিজটি এখনো সেই নতুনের মত রয়েছে। আপনি চাইলে ফ্রিজটি কিনে ব্যবহার করতে পারেন। আমার মনেহয় মাত্র ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এ রকম আকর্ষণীয় ফ্রিজ আর কোথাও পাবেন না।
ওয়ালটন WFA-2A3-GDEL-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৫১ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৫৪.৫০ সেন্টিমিটার।
  • ডাইরেক্ট ও ফাস্ট কুলিং সিস্টেম ব্যবহার।
  • সাউন্ড/নয়েজ ফ্রি টেকনোলজি।
  • এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট।
  • ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।
  • এনার্জি সেভিং সিস্টেম।
  • দীর্ঘ সময় স্বাস্থ্যকর খাবার রাখার নিশ্চয়ত।

৫। ওয়ালটন WFB-2B3-GDEL-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ২৬৭৫০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ২২৩ লিটার।
  • ওজনঃ ৫১ কেজি।
  • কালারঃ ম্যাট ব্লাক ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রন।
মাত্র ২৬ হাজার টাকায় ওয়ালটন দিচ্ছে অসাধারণ কালার ও ফিচার্স সমৃদ্ধ আকর্ষণীয় ডিজাইনের একটি ওয়ালটন ফ্রিজ। এই ফ্রিজের ফ্রন্ড দরজায় উন্নত মানের টেমপার গ্লাস ব্যবহার করা হয়েছে বিধায় ফ্রিজের চাকচিক্কে ভাব আরো অনেকাংশে বৃদ্ধি করবে। আপনার বাজের ২৫ হাজারের বেশি হয়ে থাকলে আপনি ওয়ালটন এর এই ফ্রিজটি কিনতে পারেন।
ওয়ালটন WFB-2B3-GDEL-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৫৫ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৫৫ সেন্টিমিটার।
  • উন্নত মানের ফ্রিজির প্রযুক্তি।
  • টেমপার গ্লাস ডোর।
  • ইকোজন নন ফরস্ট রিফ্রিজারেটর।
  • ন্যানো হেলথ কেয়ার।
  • প্রিভেন্ট ভেকটেরিয়া।
  • ম্যাজিক্যাল ন্যানো সিলভার টেকনোলজি।

৬। ওয়ালটন WFE-3A2-NXXX-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ২৮৭৫০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ৩১২ লিটার।
  • ওজনঃ ৫৯ কেজি।
  • কালারঃ অফ-হোয়াইট সিলভার।
ওয়ালটন কোম্পানির ভাষ্য অনুসারে এটি হচ্ছে সবচাইতে বেশি বিক্রি হওয়া ওয়ালটন এর একটি ফ্রিজ। এই ফ্রিজটি দেখতে যেমন সুন্দর এর কোয়ালিটিও অত্যান্ত ভাল। ওয়ালটনের ফ্রিজটিতে এ্যানার্জি সেভিং সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। এই ফ্রিজটি মোটামুটি অনেক বড় সাইজের একটি ফ্রিজ। আপনার ফ্যামেলি বড় হয়ে থাকলে আপনি ফ্রিজটি কিনতে পারেন।
ওয়ালটন WFE-3A2-NXXX-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৬২.৬০ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৬০ সেন্টিমিটার।
  • ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।
  • বিএসটিআই অনুমোদিত।
  • লংগার ইনডোরিং কুলিং সিস্টেম।
  • এনার্জি সেভিং ফাইভ স্টার।
  • এ্যান্টি ফাংগাল ডোর গেসকেট।
  • ওয়াইড ক্লাইমেট ডিজাইন।

৭। ওয়ালটন WFC-3X7-GDEH-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ৩২৭৫০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ৩০৭ লিটার।
  • ওজনঃ ৬০ কেজি।
  • কালারঃ বেগুনী ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রণ।
মোটামুটি মাঝারের বাজেটের মধ্যে এটি অত্যান্ত ভালমানের একটি ওয়ালটন ফ্রিজের। অন্যান্য ফ্রিজের তুলনায় এই ওয়ালটন ফ্রিজের দাম একটু বেশি। তবে অন্য গুলোর চাইতে আরো ভালোমানের বডি ও টেকনোলজি সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে। এই ফ্রিজটি ব্যবহার করার সময় কোন ধরনের নয়েজ করবে না। তাছাড়া ওয়ালটনের এই ফ্রিজের কুলিং সিস্টেম অটোম্যাটিক্যালি নিয়ন্ত্রিত হবে।
ওয়ালটন WFC-3X7-GDEH-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৬০ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৬৫ সেন্টিমিটার।
  • পাওয়ারফুল কুলিং সিস্টেম।
  • ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধক।
  • DECS টেকনোলজি ব্যবহার।
  • ফ্রেশ ফুড রাখার নিশ্চয়তা।
  • সহজ অপারেশন করা।
  • বড় মাপের স্টোরেজ।
  • স্ক্রেচ রেসিডেন্ট।
  • এয়ার ফ্রেশ ফিল্টার।

৮। ওয়ালটন WFC-3D8-GDNE-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ৩৬২০০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ৩৪৮ লিটার।
  • ওজনঃ ৭১ কেজি।
  • কালারঃ কালো ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রণ।
আপনি মাত্র ৩৬ হাজার টকায় পেয়ে যাচ্ছেন ১৭৫ সেন্টিমিটারের একটি বিশাল বড় ওয়ালটন ফ্রিজ। এই ফ্রিজের সাইজের তুলনায় দাম আমার কাছে অনেক কম মনে হয়েছে। আপনার পরিবারের সদস্য সংখ্যা বেশি হলে আপনি ওয়ালটনের এই ফ্রিজটি কিনতে পারেন। এই ফ্রিজটিতে এক সাথে আপনার নিত্য প্রয়োজনীয় অনেক জিনিসপত্র রাখতে পারবেন।
ওয়ালটন WFC-3D8-GDNE-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৭৪ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৬৫ সেন্টিমিটার।
  • ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।
  • ন্যানো হেলত কেয়ার।
  • ফাস্টার কুলিং সিস্টেম।
  • লংগার ফুড ফ্রেশনেশ।
  • ইকুলজিক্যাল সেইফ।
  • এন্টি ফাংগাল ডোর সিস্টেম।
  • ওয়াইড ক্লাইমেট ডিজাইন।

৯। ওয়ালটন WFE-3E8-GDEN-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ৩৭৫০০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ৩৫৮ লিটার।
  • ওজনঃ ৭৬ কেজি।
  • কালারঃ কালো, বেগুনী ও গোলাপী রংয়ের মিশ্রণ।
এটিও অনেক বড় সাইজের একটি ওয়ালটন ফ্রিজ। যদিও এই ওয়ালটন ফ্রিজের দাম একটু বেশি, তবে দামের তুলনায় অন্যান্য যে কোন ফ্রিজের চাইতে এই ফ্রিজটি অনেক বড়। আপনার বাজেট একটু বেশি হয়ে থাকলে এবং বড় সাইজের ফ্রিজ প্রয়োজন হলে আপনি অনায়াসে এই ফ্রিজটি কিনতে পারেন। নিচে আমরা ফ্রিজটির বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরলাম।
ওয়ালটন WFE-3E8-GDEN-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৮২ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৫৮ সেন্টিমিটার।
  • ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।
  • টেমপার গ্লাস ডোর।
  • লং ইনডোরিং কুলিং সিস্টেম।
  • দ্রুত ঠান্ডা হওয়ার সিস্টেম।
  • লংগার ফ্রেশনেস।
  • এন্টি ফাংগাল ডোর সিস্টেম।
  • এয়ার ফ্রেশ ফিল্টার।

১০। ওয়ালটন WFC-3F5-GDNE-XX ফ্রিজের দাম

  • দামঃ ৪০৩৯০/- টাকা।
  • ক্যাপাসিটিঃ ৩৮০ লিটার।
  • ওজনঃ ৭০ কেজি।
  • কালারঃ নীল ও গোলাপী রংয়ের দুটি ভেরিয়েন্ট।
ওয়ালটনের এই ফ্রিজটি অনেক দামি একটি ফ্রিজ। সাধারণত পারিবারিক প্রয়োজনে এত দাম দিয়ে কেউ ফ্রিজ কিনতে চায় না। তবে আপনি যদি বাজেট এফর্ট করতে পারেন তাহলে এই ফ্রিজটি কিনতে পারেন। এই ফ্রিজটির বিশেষত্ব হচ্ছে Intelligent Inverter টেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে। যার ফলে এটি স্বংক্রিয়ভাবে সবকিছু নিয়ন্ত্রন করবে এবং আপনার বিদ্যুৎ অপচয় অনেকাংশে কম হবে। তাছাড়া এই ফ্রিজটি দেখতে বেশ সুন্দর ও আকর্ষণীয় হওয়ায় ঘরের সুন্দরর্য্য বৃদ্ধি করবে।
ওয়ালটন WFC-3F5-GDNE-XX ফ্রিজের দাম
  • দৈর্ঘ্যঃ ১৮৬ সেন্টিমিটার।
  • প্রস্থঃ ৬৫ সেন্টিমিটার।
  • ডাইরেক্ট কুলিং সিস্টেম।
  • টেমপার গ্লাস ডোর।
  • ইন্ডিলিজেন্ট ইনভার্টার।
  • ম্যাজিক্যাল ন্যানো সিলভার টেকনোলজি।
  • এভার্টস হার্মফুল ভেকটোরিয়া।
  • ওয়াইড ক্লাইমেট ডিজাইন।
  • এন্টি ফাংগাল ডোর সিস্টেম।

শেষ কথা

বাংলাদেশের নিজেস্ব প্রোডাক্ট ওয়ালটনের সেরা ১০ টি ওয়ালটন ফ্রিজের দাম এর সর্বশেষ আপডেট আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম। আশাকরি ওয়ালটনের এই ফ্রিজগুলো আপনাদের পছন্দ হয়েছে। এ ছাড়া নতুন নুতন ওয়ালটন ফ্রিজের দাম ২০২১ এর আরো আপডেট পেতে পোস্টটি আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে শেয়ার করে রাখতে পারেন। তাছাড়া এই ১০ টি ওয়ালটন ফ্রিজের মধ্যে কোনটি আপনার বেশি পছন্দ হয়েছে সেটাও জানাতে ভূলবেন না।

আরো পড়ুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.