স্বাস্থ্য

চুল ভালো রাখতে কি করবো তেল মাখার নিয়ম

চুল ভালো রাখতে তেল মাখতেই হয়। কিন্তু সেই তেল মাখার নিয়ম কী?

তেল মেখে কি সারা রাত রেখে দেওয়া উচিত? নাকি তাতে চুলের ক্ষতি হয়। জেনে নিন আসল সত্যি। আর এই ভুল করবেন না।

রইল বিস্তারিত…

 

চুল ভালো(Hair Care) রাখার জন্য তেল মালিশ(Oil Massage) করার খুবই প্রয়োজন। এটা সত্যি কথাই। একাধিক বিশেষজ্ঞ সেই কথাই বলেন। তাহলে চুল ভালো থাকে। কিন্তু অনেকের স্ক্যাল্পের নানা সমস্যার কারণে ও চুলের সমস্যার জন্য চিকিৎসা চলে, অনেক সময় চিকিৎসকরা তেল না মাখার পরামর্শ দেন। নাহলে আর কোনও সমস্যা নেই।

প্রতি সপ্তাহে নিয়মিত স্ক্যাল্পে তেল(Hair Oil) মালিশ করলে বদল আপনারই চোখে পড়বে। কিন্তু এই তেল মাখা নিয়ে আমাদের সবার মধ্য়ে কিছু ভুল ধারণাও আছে। আর সেই ভুল ধারণা মেনে কাজ করে গেলে চুলের বারোটা বাজতে খুব বেশি সময় লাগবে না। যেমন অনেকেই মনে করেন, সারারাত তেল স্ক্যাল্পে(Overnight Hair Oil) রাখলে বুঝি ভালো উপকার হয়। কিন্তু আদৌ কি তাই? চলুন জেনে নেওয়া যাক।

সারা রাত তেল মেখে রাখা উচিত?

আপনিও কি তাঁদের মধ্য়েই একজন যাঁরা স্ক্যাল্পে তেল লাগিয়ে সারা রাত রেখে দেওয়ার কথা ভাবেন? তাহলে এই কাজটি আর করবেন না। কারণ, এটা আপনার চুলের বারোটা বাজাতে খুব বেশি সময় নেবে না। আপনি তেল মেখে খুব বেশিক্ষণ রাখবেন না। তেল মেখে ঘুমাতে যাওয়ার কথা তো আরওই ভাববেন না। এতে আপনি চুলের জন্য ভালো কিছু করছেন না।

উলটে দিনের পর দিন চুলের ক্ষতিই করে চলেছেন। একাধিক চিকিৎসক কিন্তু সেই বিষয়ে সতর্ক করেন। অতিরিক্ত তেল মাখার ফল যে আরও খারাপ হতে পারে সেই নিয়ে সাবধান করেছেন ত্বক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক কিরণ লোহিয়া। তাই এবার থেকে সারারাত তেল মেখে রাখার কথা ভাবলে এদিকটা আগে ভাবুন।

কেন সারা রাত তেল মেখে রাখা উচিত নয়?

চুলে তেল লাগানোর পরে কিন্তু চুলের গোড়া এমনিই দুর্বল হয়ে যায়। এই জন্য চুলে তেল লাগিয়ে আঁচড়াতেও নিষেধ করেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ এই সময় হালকা টান দিলেই চুল উঠে আসতে পারে। একইভাবে চুলের গোড়া এতটাই দুর্বল থাকে যে ঘষা খেলেও চুল ভেঙে যেতে পারে।

স্ক্যাল্পে তেল লাগানো থাকলে তা বেশি ধুলো ময়লা টানে। তাই শোওয়ার পর বালিশের ধুলো, ময়লা আপনার চুলে ও স্ক্যাল্পে আটকে যেতে পারে। তা খুবই স্বাভাবিক। লাভের থেকে ক্ষতি হবে বেশি। আপনি একদিনে হয়তো তা বুঝতে পারবেন না। কিন্তু দিনের পর দিন এরকম চলতে থাকলে চুলের নানা সমস্যাই হতে থাকবে।

কখন তেল লাগাবেন তাহলে?

 

প্রতিদিন চুলে তেল লাগানো উচিত বলে অনেকেই মনে করেন! কিন্তু এটাও খুব ভুল একটা ধারণা। আসলে আমাদের প্রত্যেকের স্ক্যাল্পের ধরন আলাদা আলাদা। কারও স্ক্যাল্প অয়েলি তো কারও ড্রাই। তাই আপনার স্ক্যাল্পের ধরন বুঝে নিয়ে তারপরই তেল লাগানো উচিত। কখনও বেশি তেল মাখারও প্রয়োজন নেই। আবার একেবারেই কম নয়। সামঞ্জস্য রেখে প্রয়োজন অনুযায়ী তেল মাখুন।

আপনার চুল পাতলা এবং স্ক্যাল্প রুক্ষ হলে, সপ্তাহে অন্তত তিন দিন তেল মাখুন। ঘন চুল হলে এবং স্ক্যাল্প তৈলাক্ত হলে, সপ্তাহে অন্তত একদিন তেল মাখুন। শ্যাম্পু করার অন্তত ১ ঘণ্টা আগে তেল লাগিয়ে নিন। তারপর ভালো করে শ্যাম্পু করে ফেলুন। যাতে আপনার স্ক্যাল্প পরিষ্কার হয়ে যায়।

কতটা পরিমাণে তেল লাগানো উচিত?

আপনি মনে করছেন, আপনার হয়তো অনেকটা তেল মাথায় লাগানো উচিত। অনেকের মধ্য়েই এই ভুল ধারণা কাজ করে যে, বেশি করে তেল লাগালে হয়তো চুল ভালো থাকবে। কিন্তু এর মতো ভুল আর করবেন না। কারণ, এর জন্যই আপনার চুলের বারোটা বাজছে! তেল অবশ্যই লাগান, কিন্তু পরিমাণ মতো লাগান।

স্ক্যাল্পের ও চুলের তেলের প্রয়োজন রয়েছে। তবে তার পরিমাণও ঠিক করা আছে। অনেকটা পরিমাণে তেল লাগালে আপনার শ্যাম্পুও অনেকটা লাগাতে হয়। যা আসলে চুলের জন্য খারাপ। এত এত তেল লাগালে চুলের ক্ষতিই হয় বেশি। আপনার চুলের দৈর্ঘ্য ও ঘনত্ব অনুযায়ী পরিমাণ মতো তেল নিয়ে মাসাজ করুন।

কীভাবে তেল লাগাবেন

 

অনেকেই মনে করেন যে, স্ক্যাল্পে বা মাথার তালুতে নয় আসলে চুলেই বেশি করে তেল লাগানো দরকার। একেবারেই ভুল। আসলে চুল তো আর বাতাস থেকে পুষ্টি পায় না! চুল পুষ্টি পায় আপনার স্ক্যাল্প থেকেই। চুলের গোড়ায় এবং স্ক্যাল্পে ভালো ভাবে তেল মাসাজ করলেই চুলও পুষ্টি পাবে। আর এই হিসেবটা খুবই সহজ। তাই এরপর থেকে এটা মাথায় রাখুন। এছাড়াও স্ক্যাল্পে মাসাজ করলে রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়। যা আপনার চুলের জন্য খুবই ভালো। স্ক্যাল্পে তেল না লাগিয়ে শুধু চুলে তেল মাখলে উপকার পাবেন না। তাই স্ক্যাল্পে প্রথমে ভালো করে তেল মাসাজ করে নিন এবং তারপর বাকি তেল চুলে ও চুলের ডগায় লাগিয়ে নিন।

ডিসক্লেইমার: এই প্রতিবেদনটি কেবলমাত্র সাধরণ তথ্যের জন্য। এটি কোনও ওষুধ ও চিকিৎসার অঙ্গ নয়। আরও বিস্তারিত জানতে বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে নিন।

 

 

আরও পড়ুন

🍀🍀আরো দেখুন 🍀🍀

নিউরোমেডিসিন বিশেষজ্ঞ (রংপুর)

ডাঃ মোঃ শফিকুল ইসলাম
এমবিবিএস, এমফিল (ইএম), এমডি (নিউরোলজি)
নিউরোমেডিসিন বিশেষজ্ঞ
সহকারী অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান, নিউরোলজি
রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল
চেম্বার: ল্যাবএইড ডায়াগনস্টিক রংপুর
হটলাইন: 01766663099

রাজ কুমার রায় ড
চেম্বার: পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার লি.
বাড়ি # 77/1, রোড # 1, ধাপ,
জেল রোড, রংপুর।
টেলিফোন: ০৫২১-৫৩৮৯১

এমদাদুল হক ড
নিউরোমেডিসিন বিশেষজ্ঞ
সহকারী অধ্যাপক
চেম্বার: পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার লি.
বাড়ি # 77/1, রোড # 1, ধাপ,
জেল রোড, রংপুর।
টেলিফোন: ০৫২১-৫৩৮৯১

সুকুমার মজুমদার ড
এমবিবিএস, এফসিপিএস (মেডিসিন), এমডি (নিউরোমেডিসিন)
ব্রেন, স্পিন, মেডিসিন ও নিউরোলজি বিশেষজ্ঞ
সহকারী অধ্যাপক, নিউরোমেডিসিন বিভাগ
রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল
চেম্বার: পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, রংপুর ইউনিট-২
দেখার সময়: প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে ৮টা (শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১টা)

সুকুমার মজুমদার ড
এমবিবিএস, এফসিপিএস (মেডিসিন), এমডি (নিউরোমেডিসিন)
ব্রেন, স্পিন, মেডিসিন ও নিউরোলজি বিশেষজ্ঞ
সহকারী অধ্যাপক, নিউরোমেডিসিন বিভাগ
রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল
চেম্বার: পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, রংপুর ইউনিট-২
দেখার সময়: প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে ৮টা (শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১টা)

প্রশান্ত কুমার পণ্ডিত ড
এমবিবিএস, এফসিপিএস (মেডিসিন), এমডি (নিউরোলজি)
মেডিসিন ও নিউরোমেডিসিন বিশেষজ্ঞ
কনসালটেন্ট-মেডিসিন ও নিউরোলজিস্ট
চেম্বার: পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, রংপুর ইউনিট-২
দেখার সময়: প্রতিদিন বিকাল ৪টা-৯টা (শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ২টা)

আশফাক আহমেদ ড

এমবিবিএস, বিসিএস (স্বাস্থ্য), এফসিপিএস (মেডিসিন), এমডি (নিউরোলজি) নিউরোমেডিসিন বিশেষজ্ঞ রংপুর মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

চেম্বার ও অ্যাপয়েন্টমেন্ট

আপডেট ডায়াগনস্টিক, রংপুর
ঠিকানাঃ ধাপ, জেল রোড, রংপুর
ভিজিটিং আওয়ার: অজানা। পরিদর্শন ঘন্টা জানতে কল করুন
অ্যাপয়েন্টমেন্ট:  ০১৯৭১৫৫৫৫৫৫

শেষ কথা

সম্মানিত ভিউয়াস, আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ আমার আর্টিকেলটি পড়ার জন্য। আর হ্যাঁ, আমার আর্টিকেলটি পরে যদি আপনি একটু উপকৃত হন, তাহলে আমি নিজেকে ধন্য মনে করব। আমি প্রতিনিয়তঃ চেষ্টা করি নতুন নতুন বিষয় আর্টিকেল লেখার। তাই আপনারা যারা আপডেট কোনো বিষয় সম্পর্কে জানতে চান তারা প্রতিনিয়ত আমার সাইটকে ভিজিট করতে পারেন। আপনার যদি কোন বিষয় সম্পর্কে জানার আগ্রহ থাকে। তাহলে আপনারা কমেন্ট বক্সে কমেন্টের মাধ্যমে বলতে পারেন। আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ আপনার বিষয়  নিয়ে আর্টিকেল লেখার । এই আশা ব্যক্ত করে আবারো সালাম দিয়ে শেষ করছি আসসালামু আলাইকুম রহমতুল্লাহ বারাকা তুহ।

🌿🌿Razuaman.com 🌿🌿

Leave a Reply

Your email address will not be published.