স্মার্টফোন

ডিলিট হওয়া ছবি ও ভিডিও বের করার সহজ উপায়-razuaman

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা কেমন আছেন আজকার আর্টিকেলটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ সবার জন্য । আমরা যারা মোবাইল ফোন ব্যবহার করি তাদের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছবি ও ভিডিও ,মোবাইল ফোন মেমোরিতে থাকে । হঠাৎ করে ভুলবশত যদি ডিলিট হয়ে যায় তাহলে ফিরে  আনার জন্য কি করব । আপনার যদি ডিলিট হয়ে পিকচার ও ভিডিও ফিরে আনতে চান তাহলে আজকের এই আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে বিস্তারিত জানাবো । কিভাবে আপনি আপনার মোবাইল ফোন দিয়ে একটি অ্যাপস এর মাধ্যমে আপনার ডিলিট হওয়া পিকচার ভিডিও কিভাবে ফেরত আনতে পারবেন । বিস্তারিত নিচে দেওয়া হল ।

ভুলে করে মোবাইল থেকে ছবি, ভিডিও বা অডিও ফাইল ডিলিট করে ফেলেন অনেকেই। অনেক সময় ভুলে মেমোরি কার্ড ফরম্যাটও হয়ে যায়। ফলে স্মার্টফোন থেকে হারিয়ে যায় অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্য-সহ প্রয়োজনীয় অনেক অনেক ছবি।

জেনে নিতে পারেন অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের ডিলিট হয়ে যাওয়া ডেটা রিকভারি পদ্ধতি।

মেমোরি কার্ড থেকে ডিলেট হওয়া ফাইল রিকভার করার নিয়ম –

‘রেকুভা’ সফটওয়্যার

গুগল প্লে-স্টোর থেকে পছন্দমতো ‘ফাইল রিকভারি সফটওয়্যার’ ডাউনলোড করে নিন। এর মধ্যে ‘রেকুভা’ (Recuva) সফটওয়্যার বেশ জনপ্রিয়।

কপি বা ব্যাকআপ

প্রয়োজনীয় ফাইলগুলো আগে অন্য কোথাও কপি বা ব্যাকআপ করে রাখুন। যাতে রিকভারের সময় ভুলবশত সব ফাইল ডিলেট হয়ে না যায়।

SD Card সিলেক্ট

ব্যাকআপ নেওয়া হয়ে গেলে (Recuva) সফটওয়্যার ওপেন করে মেনু থেকে SD Card সিলেক্ট করুন।

ছবিগুলো রিকভার শুরু

এখানে ডিলেট হওয়া ফাইলগুলোর একটি তালিকা আসবে। এখান থেকে প্রয়োজনীয় ফাইল বা ছবিগুলো রিকভার করা শুরু করুন।

এবার জেনে নেওয়া যাক ফোন মেমোরি থেকে ডিলেট হওয়া ফাইল রিকভার করার পদ্ধতি।

ফোন মেমোরি থেকে ডিলেট হওয়া ফাইল রিকভার করার নিয়ম –

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি বা ফোন মেমোরি থেকে ছবি বা ভিডিও ডিলেট হলে তা রিকভার করা বেশ সমস্যার। এ ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও সাহায্য করতে পারে ‘ডিস্ক ডিগার অ্যাপ’ (Disk Digger App)।

শুরুতেই গুগল প্লে-স্টোর থেকে Disk Digger App ইনস্টল করে নিন।

অ্যান্ড্রয়েড ফোন রুট করার নিয়ম বা পদ্ধতি গুগল থেকে জেনে নিতে পারেন।

যাদের ফোন ইতিমধ্যেই রুট করা আছে, তারা প্রথমেই ডিলেট হওয়া ফোল্ডারগুলো বেছে নিন।

ফাইল টাইপ (যেমন, JPG, PNG, 3gp বা Mp4) সিলেক্ট করুন।

ফাইল টাইপ সিলেক্ট করা হয়ে গেলে সেভ বাটনে ক্লিক করা ফাইলগুলো রিকভার করে ফেলতে পারবেন।

রিকিউভা সফটওয়্যারের ফিচারঃ

  • ভুল করে ডিলেট করা ফাইল রিকভারি করা। কম্পিউটার, পেনড্রাইভ, ক্যামেরার ফটো অথবা আইপডের গান যাই হোক না কেন তা রিকভার করতে পারে এ সফটওয়্যার।
  • কম্পিউটারের কোনো ড্রাইভ যদি ফরম্যাটও হয়ে যায় তবে ওই ড্রাইভ থেকেও ফাইল রিকভার করে দেবে রিকিউভা।
  • ইমেইলও রিকভার করে রিকিউভা! মাইক্রোসফট আউটলুক, মজিলা থান্ডারবার্ড অথবা উইন্ডোজ লাইভের মেইলগুলো রিকভার করতে পারে এটি।
  • আইপড অথবা এমপি থ্রি প্লেয়ারের গান ডিলেট হয়ে গেছে? কোনো চিন্তা নেই- রিকিউভা গানের তালিকাসহ তা রিকভার করে দিবে।
  • মাইক্রোসফট ফাইল সেভ করতে ভুলে গেছেন? অথবা পিসি ক্র্যাশ করেছে? সফটওয়্যারটি আপনাকে তা ফিরে পেতে সহায়তা করবে।
  • রয়েছে Deep Scan ফিচার, যার কাজ হলো হারিয়ে যাওয়া ফাইল খুঁজে বের করে নিখুঁতভাবে। তবে কিছুটা সময় বেশি নিয়ে থাকে।
  • কিছু ফাইল আছে যা চিরতরে মুছে ফেলা দরকার। যেন কোনো রিকভারি সফটওয়্যারও খুঁজে না পায়। হ্যাঁ এমন কাজ করতেও সাহায্য করবে এটি! যেন ফাইলটি একেবারে মুছে যায়।
  • রিকিউভায় রয়েছে পোর্টেবল ভার্সন। অর্থাৎ ইন্সটলের নেই কোনো ঝামেলা। যেখানে খুশি সেখানে নিয়ে ব্যবহার করা যাবে সহজেই।
  • উইন্ডোজের সকল ভার্সন সাপোর্টসহ প্রায় ৩৭ টির বেশি ভাষা সাপোর্ট করে। আরও বিস্তারিত জানুন এখানে।
Recuva এর কিছু স্ক্রিনশট : 

স্ক্যান করছে রিকিউভা!

 

স্ক্যানের ফলাফল :

 

নির্দিষ্ট ফোল্ডার দেখিয়ে স্ক্যান করা হচ্ছে :

 

ডিলেট হয়ে যাওয়া অনেক ছবির মাঝে সঠিক ছবিটি খুঁজে পেতে থাম্বনেইল অপশনের সাহায্যে পাওয়া যাবে খুব সহজেই। নিচে দেখুন :

 

নির্দিষ্ট করে ছবি, গান বা ডকুমেন্ট স্ক্যান করা যাবে ফলে ডাটা পাওয়া যাবে আরও সহজে। উদাহরণ দেখুন :

 

ফাইল ডিলেট হয়ে যাওয়ার সাথে সাথেই চেষ্টা করবেন রিকভারি করার। কারণ যে ড্রাইভটি ফরম্যাট হয়ে গেছে সেই ড্রাইভে যদি নতুন করে ফাইল রাখেন তাহলে আগের ডিলেট হয়ে যাওয়া ফাইলের সাথে ওভাররাইট হয়ে যাবে। ফলে রিকভারি হবে না ঠিকভাবে। এ ছাড়া স্ক্যান করার সময় অবশ্যই Deep Scan অপশনটি চেক করে দিবেন।

ডাউনলোড : Recuva মাত্র ৪ মেগাবাইট এবং ফ্রি। তবে প্রিমিয়াম ভার্সনও রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.