সংবাদ

ঢাকায় মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে পোশাক শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ!

ঢাকায় মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে পোশাক শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ

ঢাকায় মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে পোশাক শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করেছে পুলিশ

ঢাকার মিরপুরে নিত্যপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভরত বেশ কয়েকটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকদের তাড়াতে কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে পুলিশ।

বিক্ষোভকারীরা বিক্ষোভ শুরু করার প্রায় ছয় ঘণ্টা পর শনিবার বিকেল ৫টার দিকে 13 ও 14 নম্বর সেকশনের রাস্তা এবং 10 নম্বর সেকশনের গোলচত্বর ছেড়ে চলে যায়।

পল্লবী থানার ওসি পারভেজ ইসলাম বলেন, কিছু বিক্ষোভকারী 10 এবং 11 ধারার মধ্যে গাড়ি এবং শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামের ক্ষতি করেছে।

পুলিশ তাদের তাড়ানোর চেষ্টা করলে তারা ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে, যার ফলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। অবশেষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বেশ কয়েকটি কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় বলে জানান পারভেজ।

বিক্ষোভ চলাকালে শ্রমিকরা প্রধান সড়কে যানবাহন চলাচল করতে দেয়নি, এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়। কিছু আন্দোলনকারী চালকদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে।

শ্রমিকরা সকাল ১১টার দিকে মিরপুর-১৩-এ বিক্ষোভ শুরু করে, মজুরি বাড়াতে হবে নয়তো নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কমাতে হবে। দুপুর আড়াইটায় তারা মিরপুর-১০ গোলচত্বরে নামা পর্যন্ত এলাকায় বিক্ষোভ অব্যাহত থাকে।

Apex, MBM Garments Ltd, Saroj, VISION, IDS Group, Kolka, Jokky এবং Dmox-এর হাজার হাজার শ্রমিক বিক্ষোভে যোগ দেয়।

সরোজের কর্মী নাজমা আক্তার বলেন, “একটি ডিমের দাম এখন ১৫ টাকা, কিন্তু কারখানার মালিকরা বেতন বাড়াচ্ছেন না, আমি কী করব বুঝতে পারছি না।”

কাফরুল থানার পরিদর্শক কামরুল ইসলাম এর আগে জানান, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আন্দোলনকারীদের রাস্তা থেকে সরানোর চেষ্টা করছে।

মিরপুরের কোলকা পোশাক কারখানার শ্রমিক ফয়সাল বলেন, একই দাবিতে বৃহস্পতিবার শ্রমিকরাও বিক্ষোভ করেছে।

একজন হেল্পার মাসিক ৮,০০০ টাকা বেতন পান। এত অল্প টাকায় একজন মানুষ কিভাবে একমাস বাঁচবে? তিনি জিজ্ঞাসা.

Leave a Reply

Your email address will not be published.