অভিনেতা ও অভিনেত্রীসংবাদ

পরিমনির ঘটনায় মুখ খুললেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল….

গ্রেফতার হওয়ার পর  পরীমনির ঘটনায় মুখ খুললেন ডিপজল । মাদক মামলায় গ্রেফতার চিত্রনায়িকা পরীমনিকে নিয়ে এবার কথা বলেছেন জনপ্রিয় খল অভিনেতা ও প্রযোজক মনোয়ার হোসেন ডিপজল। সোমবার বেশ কয়েকটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের মুখোমুখি হন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর, সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান ও ডিপজল।

এ সময় পরীমনিকাণ্ড নিয়ে ডিপজলকে সাংবাদিকরা জিজ্ঞেস করেন, এ অভিনেত্রীর অপরাধ এখনও তদন্তাধীন, রিমান্ডে আছেন তিনি। কিন্তু বলা হচ্ছে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি পরীমনি পাশে দাঁড়ায়নি। এ বিষয়ে আপনার বক্তব্য কি? জবাবে ডিপজল বলেন, ‘দেখুন, আমরা কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নই। আমাদের শিল্পী সমিতি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আমরা সবাই মিলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, আইনের বিপক্ষে যাওয়া যাবে না। এখন দেখা যাক সামনে কি হয়।

গ্রেফতার পরীমনির আইনি লড়াইয়ে তিনি পাশে থাকবেন কি না সাংবাদিকের সেই প্রশ্নে বিষয়টি এড়িয়ে যান এই নাট্যনির্মাতা। এদিকে চয়নিকা চৌধুরীর ওয়েব ফিল্ম ‘অন্তরালে’র সঙ্গে সম্প্রতিই চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন পরীমনি। এর শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে। কিন্তু পরীমনি আটক হওয়ায় তা এখন অনিশ্চয়তায় পড়েছে। সে হিসেবে পরীমনির গ্রেফতারে বিপাকেই পড়েছেন এ নাট্যনির্মাতা। এ বিষয়ে চয়নিকা বলেন, ‘দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আমাদের সম্মান আছে। ঘটনাটি মাত্রই ঘটল। এখন কিছু বলা ঠিক না৷ আমরা অপেক্ষা করব কিছুদিন৷ অবস্থা বোঝে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ও টিমের সঙ্গে বসে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।’আইনকে পাশ কাটিয়ে পরীমনির বিষয়ে আমরা পক্ষে বা বিপক্ষে কোনো দিকেই জড়াতে চাই না। আইন পরীমনির বিষয়ে যে সিদ্ধান্ত নেবে আমরা সেটা মেনে নেব। এরপর সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, পরীমনির এই ঘটনার পর চলচ্চিত্রাঙ্গনের আর কোনো শিল্পী এমন বিতর্কিত কাজে জড়িয়ে যাচ্ছে কি না , সে বিষয়ে বক্তব্য কি ডিপজল বলেন, ‘সহকর্মীদের সাবধান করে দেওয়া হয়েছে যে, তারা যেন সুন্দরভাবে, ভালোভাবে চলে।

বিতর্কিত পথ, খারাপ রাস্তায় জড়িত না হয়। এর আগে পরীমনির বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। তিনি বলেন, পরীমনির বিষয়ে এর আগের কাণ্ডে আমাদের বাজে অভিজ্ঞতা হয়েছে। আমরা ওই ঘটনায় (বোট ক্লাব কাণ্ড) তার থেকে দুদিন সময় চেয়েছিলাম। কিন্তু পরীমনি আমাদের অপেক্ষা না করে নিজেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলেন।

সাংবাদিকদের ডেকে সংবাদসম্মেলন করলেন। শিল্পী সমিতি সবার পাশে আছে। বিপদে পড়া সবাই সমিতিকে পাশে পেয়েছে। জাভেদ ভাইয়ের অসুস্থতায় আমরা প্রধানমন্ত্রীর অনুদান এনে দিয়েছি। কোনো শিল্পী জেলে গেলেও তার জন্য কাজ করেছে। পরীমনির বেলায়ও আমরা তার পাশে থাকব, যদি তিনি চান।


এদিকে চয়নিকা চৌধুরীর ওয়েব ফিল্ম ‘অন্তরালে’র সঙ্গে সম্প্রতিই চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন পরীমনি। এর শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে। কিন্তু পরীমনি আটক হওয়ায় তা এখন অনিশ্চয়তায় পড়েছে।

সে হিসেবে পরীমনির গ্রেফতারে বিপাকেই পড়েছেন এ নাট্যনির্মাতা।

এ বিষয়ে চয়নিকা বলেন, ‘দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আমাদের সম্মান আছে। ঘটনাটি মাত্রই ঘটল। এখন কিছু বলা ঠিক না৷ আমরা অপেক্ষা করব কিছুদিন৷ অবস্থা বোঝে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ও টিমের সঙ্গে বসে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.