স্মার্টফোন

বাংলাদেশে ভিভো মোবাইলের সর্বশেষ দাম 2022

🇧🇩 কিছু দাম আজকের বাজার মূল্য অনুযায়ী আপ টু ডেট নাও হতে পারে। সঠিক সর্বশেষ মূল্যের জন্য অনুগ্রহ করে সর্বদা আপনার অফিসিয়াল স্থানীয় স্টোর বা অন্যান্য অফিসিয়াল ব্র্যান্ড চ্যানেলে যান।

🇧🇩বাংলাদেশে ভিভো মোবাইলের সর্বশেষ দাম 2022

সর্বশেষ | শীর্ষ

Vivo Y33s ✭
৳20,990 4/128 GBLatest | শীর্ষ

Vivo Y21T ✭
৳17,990 4/128 GBLatest | শীর্ষ

Vivo V23e ✭
৳27,990সর্বশেষ | শীর্ষ

Vivo V23 5G ✭
৳39,990সর্বশেষ | শীর্ষ

Vivo Y15s ✭
৳11,990 ৳12,990 3/32 GBLatest | শীর্ষ

Vivo X70 Pro 5G ✭
৳72,990 সর্বশেষ | শীর্ষ

Vivo Y21 ✭
৳14,990 ৳15,990 4/64 GBLatest | শীর্ষ

Vivo Y53s ✭
৳20,990 ৳22,990শীর্ষ

Vivo Y12a ✭
৳12,990 3/32 GBTop

Vivo V21e ✭
৳26,990শীর্ষ

Vivo V21 ✭
৳32,990 8/128 জিবি

Vivo X60 Pro 5G ✭
৳69,990শীর্ষ

Vivo Y1s ✭
৳8,999 ৳9,999

Vivo Y20G ✭
৳17,990 6/128 GBTop

Vivo Y20 2021 ✭
৳13,990

Vivo Y51 ✭
৳19,990 ৳21,990 8/128 GBTop

Vivo Y12s ✭
৳11,990 3/32 জিবি

Vivo V20 SE ✭
৳22,990 ৳24,990
Vivo V20 ✭
৳27,990 ৳29,990
Vivo Y30 ✭
৳16,990 4/64 জিবি
Vivo Y50 ✭
৳19,990
Vivo Y11 (2019) ✭
৳11,990

পৃষ্ঠা: 1 | 2>>

ভিভো মোবাইলের খবর🌼🌷

Vivo হল একটি চাইনিজ অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক যা 2009 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। Vivo-এর মালিকানা চীনা বহুজাতিক কোম্পানি BBK Electronics যেটি আরেকটি জনপ্রিয় চীনা ব্র্যান্ড Oppo-এর মালিক।

 

Vivo 2014 সাল থেকে চীনের বাইরে তার বাজার সম্প্রসারণ শুরু করেছে এবং বর্তমানে তারা 100 টিরও বেশি দেশে কাজ করছে। Q4 2021 অনুযায়ী, Vivo হল বিশ্বের পঞ্চম জনপ্রিয় ফোন ব্র্যান্ড যার 8% মার্কেট শেয়ার রয়েছে। তাদের উপরে রয়েছে Apple, Samsung, Xiaomi এবং Oppo।

ভিভো ফোনের ইতিহাস

যদিও ভিভো 2009 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, এটি তাদের প্রথম দিকে তুলনামূলকভাবে অপরিচিত নাম ছিল। কিন্তু কয়েক বছরের মধ্যে, এটি চীনের অভ্যন্তরে এবং বাইরের বৃহত্তম ব্র্যান্ডগুলির মধ্যে একটি হয়ে ওঠে। তাদের 2017 সালে, Vivo ছিল বিশ্বের 5তম বৃহত্তম স্মার্টফোন বিক্রেতা যেখানে 100.7 মিলিয়ন মোট শিপমেন্ট এবং একটি বিশাল 36% বৃদ্ধির হার আগের বছরের তুলনায়। তাদের অবস্থান ছিল শুধু স্যামসাং, অ্যাপল, হুয়াওয়ে এবং ওপ্পোর অধীনে। এমনকি Xiaomi তাদের অধীনে 96 মিলিয়ন শিপমেন্ট নিয়ে 6 তম অবস্থানে ছিল (সূত্র: counterpointresearch)।

 

Vivo 2017 সালে বিশ্বের মোট 7% স্মার্টফোন মার্কেট শেয়ার ছিল। তারা ভারত এবং চীনের বড় বাজারে 3য় জনপ্রিয় ব্র্যান্ড ছিল। Vivo X9, Y66, V7, V7+ এবং V9 হল অতীতের কিছু সফল রিলিজ। (সূত্র: কাউন্টারপয়েন্ট রিসার্চ)।

বাংলাদেশে ভিভো

Vivo আনুষ্ঠানিকভাবে ডিসেম্বর 2017 সালে তার বাংলাদেশ যাত্রা শুরু করে। কোন পরিচিত প্রেস কভারেজ ছিল না। কিন্তু তাদের সোশ্যাল মিডিয়া পেজটি তাৎক্ষণিক ফলোয়ার পেতে শুরু করে এবং পরের কয়েক মাসের মধ্যে বিপুল সংখ্যক দর্শকের কাছে পৌঁছে।

 

Vivo তাদের যাত্রা শুরু করেছে চারটি ফোন Vivo Y53, Y65, V7 এবং V7+ নিয়ে। তারা প্রাথমিকভাবে ঢাকা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, ভোলা, ফরিদপুর, নারায়ণগঞ্জ, ময়মনসিংহ, রংপুর এবং সিলেটে তাদের শোরুম এবং অনুমোদিত ডিলার প্রতিষ্ঠা করেছে। 2018 সালে, Vivo Y71, Y81 এবং Y81i এর মতো সফল রিলিজের মাধ্যমে বাংলাদেশে Vivo ক্রমাগত বৃদ্ধি পেতে থাকে।

 

2019 সালে, Vivo বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো পপ-আপ ফ্রন্ট ক্যামেরা এবং ম্যাক্স ফুল-ভিউ ডিসপ্লে সহ V15 এবং V15 Pro চালু করেছে। বর্তমানে, এটি বিভিন্ন বাজেট গ্রুপের জন্য ক্রমাগত সফল রিলিজ সহ দেশের অন্যতম জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড। Vivo X60 Pro বাংলাদেশে তাদের প্রথম 5G স্মার্টফোন রিলিজ। এর পরে, তারা পেশাদার মোবাইল ক্যামেরা সহ আরও উন্নত ফ্ল্যাগশিপ-স্তরের X70 Pro 5G প্রকাশ করেছে।

 

2022 সালে, Vivo Vivo V23 5G এবং Vivo Y21T এর মতো রিলিজ নিয়ে বাংলাদেশে তার সাফল্য অব্যাহত রেখেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.