Durga Puja

দুর্গাপূজা সার্বজনীন উৎসব: প্রধানমন্ত্রী-বাংলাদেশ দুর্গাপূজা উদযাপনের সূচনা করেছে?razuaman.com

মহামারীতে বাংলাদেশ দুর্গাপূজা উদযাপনের সূচনা করেছে  হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় বার্ষিক অনুষ্ঠান দুর্গা পূজা মহাষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে সারা দেশে শুরু হয়েছে। ঢাকা শহরে উদযাপনের আয়োজক কিশোর রঞ্জন মণ্ডল বলেন, সোমবার সকাল 8 টায় অনেক ধুমধামের মধ্যে অনুষ্ঠান শুরু হয়। হিন্দু শাস্ত্র অনুসারে, দিনটি চন্দ্রের ষষ্ঠ দিন হিসেবে চিহ্নিত হয় যখন দেবী দুর্গা স্বর্গ থেকে পৃথিবীতে নেমে আসেন অশুভ শক্তিকে নির্মূল করে শান্তি ও সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠার জন্য।

১৫ অক্টোবর জলে দেবীর মূর্তি বিসর্জনের মধ্য দিয়ে পাঁচ দিনের ধর্মীয় উৎসব শেষ হবে।

করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে ঘটনাস্থলে দর্শনার্থীদের জন্য মুখোশ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মণ্ডল। এই বছর, মন্দিরগুলির আশেপাশে কোনও নৃত্য প্রতিযোগিতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বা মেলা অনুষ্ঠিত হবে না। মন্দিরের প্রবেশপথে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য আলাদা লাইনের ব্যবস্থা করা হবে।

এই বছর ,২,১১7 টি স্থানে দুর্গাপূজার আয়োজন করা হচ্ছে। গত বছরের তুলনায়, প্যান্ডেলের সংখ্যা 1,905 বেড়েছে। এই বছর ঢাকার বিভিন্ন স্থানে 238 টি প্যান্ডেলে পূজা অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেন, পুলিশ কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা রেখেছে। কমিশনার সংক্রমণের সংক্রমণ কমাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

দুর্গাপূজা সার্বজনীন উৎসব: প্রধানমন্ত্রী

দুর্গাপূজা শুধু হিন্দু সম্প্রদায়ের উৎসবই নয়, এটি এখন সার্বজনীন উৎসব বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা উপলক্ষে এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।

দুর্গাপূজা সার্বজনীন উৎসব: প্রধানমন্ত্রী

নিজে পড়ুন:-

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এখানে সব ধর্মের মানুষ সমভাবে উন্নয়নের সুফল উপভোগ করছে। ‘ধর্ম যার যার, উৎসব সবার’- এ মন্ত্রে উজ্জীবিত হয়ে বাংলাদেশে আমরা সব ধর্মীয় উৎসব একসঙ্গে পালন করি।

তিনি বলেন, আমাদের সংবিধানে সব ধর্ম ও বর্ণের মানুষের সমান অধিকার সুনিশ্চিত করা হয়েছে। বাংলাদেশ ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষের নিরাপদ আবাসভূমি। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার জাতি-ধর্ম-বর্ণ-গোষ্ঠী নির্বিশেষে সবার উন্নয়ন করে যাচ্ছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা উপলক্ষে দেশের হিন্দু ধর্মাবলম্বী নাগরিকদের আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী।
 
তিনি বলেন, দুর্গাপূজা শুধু হিন্দু সম্প্রদায়ের উৎসবই নয়, এটি এখন সার্বজনীন উৎসব। অশুভ শক্তির বিনাশ এবং সত্য ও সুন্দরের আরাধনা শারদীয় দুর্গোৎসবের প্রধান বৈশিষ্ট্য।

আরও পড়ুন:  হিলিতে বাণিজ্য বন্ধ থাকবে ৬ দিন

 
দুর্গাপূজা উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী হিন্দু ধর্মাবলম্বীসহ সবার শান্তি, কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনা করেন।
শেখ হাসিনা বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি। আমরা জনগণকে সব সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছি। আমাদের সবাইকে একে অপরের সহযোগিতায় এগিয়ে আসতে হবে। আমি সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপনের অনুরোধ জানাই।
 
মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে সমুন্নত রেখে ঐক্যবদ্ধভাবে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.