ল্যাপটপ

বাজারের সেরা দশটি ল্যাপটপ কম্পিউটার 2021!

ধরুন আপনি যেখানে কম দামের মধ্যে ল্যাপটপ কিনতে চাইছেন সেখানে অন্য আরেকজন হয়তো বেশী দামের ল্যাপটপ খুঁজছেন। ল্যাপটপ কেনার সময় মানুষ বেশ কিছু জিনিস চিন্তা করে।  আরেকটি বিষয় যা অবশ্যই ভাবতে হবে তা হলো, মেশিনটি আপনি কী কাজে লাগাবেন।  ল্যাপটপের রিভিউগুলোতে হাইলাইটেড ফিচারগুলোর কথা ভেবে দেখতে পারেন; যেমন, মেশিনে টাচ স্ক্রিন সুবিধা।

মূলত গেম খেলার জন্য হলে এর আলাদা গ্রাফিক্স কার্ড লাগবে, অপরদিকে মুভি দেখতে ভালো ফুল এইচডি স্ক্রিনের কম্পিউটার লাগবে।

৩. Apple MacBook Pro 15-Inch – ডেস্কটপের সেরা বিকল্প

এই পরামর্শগুলো ল্যাপএসব ডিভাইসের দাম একটু বেশী বা ওপরের দিকে হলেও এর কার্যক্ষমতার জন্য দামের ক্ষেত্রে আপোষ করা যায়। এভাবে দাম দিয়ে হলেও মানসম্পন্ন কম্পিউটার কিনলে আপনাকে তার জন্য আর পস্তাতে হবে না। আপনার বাজেটের মধ্যে ল্যাপটপ কিনতে আমাদের নতুন এই টিপস টি পড়ুন

টপ কেনার আগে আপনার জন্য কোন ডিভাইসটি ভালো হবে তা বুঝতে সহায়তা করবে। এখানে উল্লেখিত মেশিনগুলো অতি সম্প্রতি বাজারে এসেছে এবং এদের পারফর্মেন্স আগের চেয়ে অনেক উন্নত। বাজারে আসা নতুন কম্পিউটার কেনার পরামর্শ দেয়া যাচ্ছে, কারণ সেগুলোতে নানা ধরনের আপগ্রেড ও সুযোগ-সুবিধা থাকে।

১. Apple MacBook Air 13-Inch – সেরা আলট্রাপোর্টেবল

Apple MacBook Air-এর ২০১৪ সংস্করণ বর্তমানে বাজারের সেরা নোটবুক। এটি অনেক হালকা যার ওজন মাত্র ২.৯ পাউন্ড। এতে রয়েছে Intel Corei5 ১.৪ গিগাহার্জ প্রসেসর এবং ৮ জিবি র‍্যাম, যা ডিভাইসটিকে করেছে অত্যন্ত দ্রুতগতি সম্পন্ন। গেমাররা Intel HD Graphics 5000 টি বেশ পছন্দ করবেন, যদিও ১৩.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লেটি ছোট মনে হতে পারে, এবং এর ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ অনেকের কাছেই কম মনে হবে।

২. Apple MacBook Pro 13-Inch – সেরা দক্ষ আলট্রাপোর্টেবল

২০১৪ সালের এই মডেলে রয়েছে রেটিনা ডিসপ্লে (Retina Display), সুন্দর ডিজাইন এবং ১৩ ঘণ্টার ব্যাটারি লাইফ। Intel Core i5 ২.৬ গিগাহার্জ প্রসেসরের সাথে ৮ জিবি র‍্যামের কারনে এর পারফর্মেন্স খুবই ভালো। এর রয়েছে Intel Iris গ্রাফিক্স কার্ড এবং ১৩.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে। এর দাম একটু বেশী। Mac OS X চালিত এই কম্পিউটারের পারফর্মেন্স খুবই ভালো। আরও দেখুন

এটি দারুণ একটি মেশিন যা অন্যান্য Windows চালিত উন্নত ডিভাইসের মধ্যে ডেস্কটপের বিকল্প হিসেবে জনপ্রিয়। এটি অত্যন্ত দ্রুত গতি সম্পন্ন মেশিন যা ২.২ গিগাহার্জ Intel Core i7 প্রসেসরে চলে। এর ১৬ জিবি র‍্যাম এবং ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ রয়েছে। এর Intel Iris Pro 5200 গ্রাফিক্স কার্ড এবং ১৫.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে, যার কারনে এটি গেমিং ও অন্যান্য বিনোদনের জন্য চমৎকার একটি মেশিন। Mac OS X এই কম্পিউটারের পারফর্মেন্সকে করেছে আরও অসাধারণ।

৪. HP Chromebook 11 – সাধারণ কাজে ব্যবহারের জন্য সেরা আলট্রা পোর্টেবল

এটি বাজারে কমদামের মধ্যে সবচেয়ে সেরা ল্যাপটপ। মোবাইল ইন্টারনেট কানেক্টিভিটির জন্য এটি অন্যান্য কমদামী ল্যাপটপকে ছাপিয়ে গেছে। এটি পাতলা এবং এর ডিজাইন সুন্দর এবং ওজন মাত্র ২.৩ পাউন্ড। এটি Google Chrome OS এবং ১.৭ গিগাহার্জ Samsung Exynos 5250 CPU-তে চলে এবং এতে ২ জিবি র‍্যাম, ১৬ জিবি স্টোরেজ রয়েছে। এর গ্রাফিক্স কার্ড ARM Mali-T604, এবং এতে ১১.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে আছে। আপনি যদি কম দামের মধ্যে ল্যাপটপ খুঁজে থাকেন তবে এটি হতে পারে সেরা পছন্দ। Chromebook 11-এর ইন্টারফেস ও পারফর্মেন্স সমানভাবে দক্ষ। এইচপি ল্যাপটপ নিয়ে আমাদের আরেকটি প্রবন্ধ দেখুন

এটি কনভার্টেবল হাইব্রিড ল্যাপটপ যাতে সম্পূর্ণরূপে টাচ-স্ক্রিন সুবিধা কাজে লাগানো হয়েছে। ২ জিবি র‍্যাম ও ৫০০ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ সহ এতে ২.১৬ গিগাহার্জ Intel Pentium N3530 প্রসেসর রয়েছে। এতে Intel HD গ্রাফিক্স এবং ১১.৬ ইঞ্চি স্ক্রিন রয়েছে। এটি Windows 8 চালিত মেশিন যার পারফর্মেন্স বেশ ভালো।

৬. Lenovo ThinkPad X240– সেরা বিজনেস আলট্রাবুক

শক্তিশালী বিজনেস আলট্রাবুক হিসেবে এটি পরীক্ষিত। এটি ব্যবহারকারীকে ১৫ ঘণ্টার ব্যাটারি লাইফ প্রদান করে, চমৎকার গঠনের এই আলট্রাবুকের মূল্য যথার্থ। এতে ১.৬ গিগাহার্জ Intel Core i5-4200U প্রসেসর, ২৫৬ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ ও ৮ জিবি র‍্যাম রয়েছে। এতে ১২.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে এবং Intel HD Graphics 4400 রয়েছে। windows 8 চালিত, ThinkPad X240-এর পারফর্মেন্স অনবদ্য।

৭. Lenovo Flex 2 – ডাইন্যামিক ডেস্কটপের সেরা বিকল্প

এর দাম নাগালের মধ্যে; অধিকাংশ রিভিউয়ের মতে ডেস্কটপের বিকল্প হিসেবে এটি অনন্য। এতে আছে ৩০০-ডিগ্রি ফোল্ডিং ডিসপ্লে। এছাড়াও, এতে ১.৭ গিগাহার্জ Intel Core i5-4210U প্রসেসর, ৫০০ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ ও ৬ জিবি র‍্যাম রয়েছে। এর ডিসপ্লের মাপ ১৫.৬ ইঞ্চি এবং এতে Intel HD Graphics 4400 রয়েছে। windows 8 চালিত এই ডিভাইসটির পারফর্মেন্স ভালো।

৮. MSI GS60 Ghost Pro 3K – সেরা গেমিং আলট্রা পোর্টেবল

অধিকাংশ গেমারের কাছে এটি একটি ডিলাইট মেশিন যাতে রয়েছে ২.৫ গিগাহার্জ Intel Core i7-4710HQ প্রসেসর। এর র‍্যাম ১৬ জিবি ও ১২৫৬ জিবি ইন্টারনাল মেমরি রয়েছে। এতে একটি NVidia GeForce GTX 870M গ্রাফিক্স ও ১৫.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে আছে। Windows 8 চালিত এই ডিভাইসটির পারফর্মেন্স চমৎকার।

৯. Toshiba Kirabook 13 i7s Touch – বিজনেস আলট্রাবুক

এর হাল্কা, দুর্দান্ত এবং সেরা যন্ত্রাংশের জন্য ব্যবসার কাজে এটি একটি স্বপ্নের আলট্রাবুক। এটি ১.৮ গিগাহার্জ Intel Core i7-4500u প্রসেসরে চলে। এর ২৫৬ জিবি স্টোরেজ ও ৮ জিবি র‍্যাম রয়েছে। এতে Intel HD Graphics 4400 ও ১৩.৩ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে। এটিও windows 8 চালিত কম্পিউটার।

১০. Toshiba Satellite Radius P55W-B5224- ট্যাবলেট আলট্রাবুক

সেরা কনভার্টেবল হাইব্রিডের তালিকায় এটি রয়েছে, কারণ এর অনবদ্য পারফর্মেন্স এবং দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি লাইফ। এর ২ গিগাহার্জ Intel Core i7-4510u প্রসেসর রয়েছে, সাথে রয়েছে ৮ জিবি র‍্যাম ও ১ টেরাবাইট স্টোরেজ। Intel HD Graphics 4400 সহ এর ১৫.৬ ইঞ্চি স্ক্রিন রয়েছে। এটি windows 8 চালিত মেশিন এবং এর পারফর্মেন্স অসাধারণ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.