স্বাস্থ্য

বেশিক্ষণ সেক্স করার উপায়-দীর্ঘক্ষণ সেক্স করার কার্যকর উপায়।

অ‌নেক সময় ধ‌রে সেক্স কর‌তে কে না চায়! সবারই ম‌নে সুপ্ত বাসনা থা‌কে দীর্ঘ সময় নি‌য়ে সেক্স করার। কারও সমস্যার কারণে আবার কারও এম‌নি‌তেই সে‌ক্সের সময় কম হয়। আর এজন্য আজ সে‌ক্সের সময় বাড়া‌নোর উপায় নি‌য়ে আ‌লোচনা কর‌ছি। আশা রা‌খি নিয়‌মিত এই পদ্ধ‌তি অনুসরণ ক‌রে, আপ‌নি এবং আপনার সাথী‌ পূর্ণ সে‌ক্সের আনন্দ উপ‌ভোগ কর‌তে পার‌বেন।

সেক্স করার অ‌নেক আ‌গেই স‌ঙ্গি বা স‌ঙ্গিনী‌কে জানান তার সা‌থে সেক্স কর‌বেন। দুজ‌নেই সে‌ক্সের জন্য য‌থেষ্ট প্রস্তু‌তি নিন। যদি কোন একজ‌নের অসম্ম‌তি থা‌কে; ত‌বে সে যাত্রায় ধৈর্য ধরুন। কারণ এসময় সেক্স না করা স‌র্বোত্তম।

স্বামী স্ত্রীর পুর্ণ সম্ম‌তিক্র‌মে প্রস্তুত হওয়ার পর গলায়, গা‌লে, ঠোঁ‌টে, জিহ্বায়, স্ত‌নে, নিত‌ম্বে ইচ্ছাম‌তো জিহ্বা ও ঠোঁট দি‌য়ে চে‌টেপু‌টে অ‌স্থির করে তুলুন। এ সময় আপনার হাতটা‌কেও ব্যবহার করুন। যা‌দের পেনিস বা পুরুষাঙ্গ ছোট, তা‌দের জন্য এই র‌তি‌ক্রিয়া করা বে‌শি প্র‌য়োজন।
এরপর ধী‌রে ধী‌রে সে‌ক্সের প‌থে এ‌গি‌য়ে যান। নিশ্বাস বন্ধ রে‌খে সেক্স শুরু করুন।

অবশ্যই চো‌খের দৃ‌ষ্টি ও চিন্তা‌ শ‌ক্তিকে অন্যত্র রাখ‌বেন। সে‌ক্সের এই পদ্ধ‌তি এক‌দি‌নে হ‌বে না; তাই নিয়‌মিত চেষ্টা চা‌লি‌য়ে যান। কারণ খুব বে‌শি সেক্স উ‌ত্তেজনায় পাগল হ‌লে দ্রুত বীর্যপাত হ‌বে। প্রচন্ড উ‌ত্তে‌জিত হ‌লে হুশ ক‌রে লিঙ্গ বের ক‌রে নি‌য়ে কিছুক্ষণ শান্ত থাকুন। তারপর আবার সেক্স শুরু করুন।

একস‌ঙ্গে স্তন, মুখ, যৌনাঙ্গ এবং জ‌ড়ি‌য়ে ধ‌রে, সর্বাঙ্গ ব্যবহার ক‌রে সেক্স কর‌লে বীর্য বে‌শি সময় ধ‌রে রাখা সম্ভব হ‌বে না। কারণ বীর্য যখন আ‌সে তা ৩৬০ মাই‌লেরও বে‌শি বে‌গে আ‌সে। তাই সে‌ক্সের সময় যে কোন একটা ব্যবহার করুন। কোন অবস্থা‌তেই সর্বাঙ্গ জ‌ড়ি‌য়ে বা ব্যবহার ক‌রে সেক্স কর‌বেন না। যে দ্রুত বীর্যপাত ঠেকা‌তে পা‌রে, তার কা‌ছে স‌র্বোবস্থায় এ‌টি সহজ। ত‌বে যখন বীর্য বের হ‌য়ে আসার উপক্রম, তখন তা‌কে আটকা‌নোর চেষ্টা কর‌বেন না।

যারা নি‌জের শ‌ক্তিশালী বীর্য‌কে অফুরন্ত ম‌নে ক‌রে বীর্যপাত ক‌রেন, তারা আসল বীর্যবান পুরুষ। যদি জীব‌নে এক‌দি‌নের জন্য লোভ লালসা ও শা‌ন্তির কথা ভু‌লে বীর্যপাত না ক‌রে, সেক্সের গহ্বর থে‌কে ফি‌রে আস‌তে পা‌রেন; তাহ‌লে প‌রের দিন আপ‌নি বুঝ‌তে পার‌বেন আপনার যৌন শ‌ক্তি কত বে‌শি আর গাঢ় হ‌য়ে গে‌ছে।

যা‌দের বীর্য খুব পাতলা তারা যো‌নিদ্বা‌রে পুরুষাঙ্গ ঢুকা‌নোর পর কিছুটা স্থির রাখ‌বেন। মন‌কে বুঝা‌বেন এতটুকু‌তে এ‌তো মজা! আরও বে‌শি সময় সেক্স কর‌লে আরও বে‌শি তৃ‌প্তি হ‌বে। পুরুষাঙ্গ যোনি‌তে প্র‌বেশ করা‌নোর পর সবসময় চালা‌নো ঠিক হ‌বে না। তাই মা‌ঝে মা‌ঝে স্থির রাখুন। যৌন মিলন বা সে‌ক্সের সময় যৌন সুখ নষ্ট করা যা‌বে না।

যৌন সুখ নি‌য়েই সেক্স শেষ কর‌তে হ‌বে। ত‌বেই আপ‌নি যৌনতার পূর্ণ আনন্দ বুঝবেন।একথা ম‌নে রাখ‌বেন যে, পাশ‌বিক চ‌রিত্র বিনা‌ষের জন্য মানুষ সেক্স ক‌রে। কিন্তু আপ‌নি সেক্স ক‌রে য‌দি সেই পাশ‌বিকতা‌কে নষ্ট কর‌তে না পা‌রেন ত‌বে বুঝ‌তে হ‌বে, সেক্স বা দেহ মিলন স‌ঠিক হয়‌নি।

আপ‌নি য‌দি অনেক সময় ধ‌রে সেক্স কর‌তে আগ্রহী হন, তাহ‌লে সে‌ক্সের সময় নিশ্বাস বন্ধ রে‌খে এবং অ‌তি‌রিক্ত যৌন লালসা‌কে দমন ক‌রে সেক্স কর‌তে হ‌বে। তাহ‌লেই বে‌শিক্ষণ যৌন মিলন বা সেক্স কর‌তে পার‌বেন। আস‌লে ইচ্ছাশ‌ক্তি হ‌চ্ছে সব‌চে‌য়ে বড় ব্যপার। ইচ্ছা, চেষ্টা, সাধনা কর‌লে কোন কাজই অসম্পূর্ণ থা‌কে না।

মিলনের আগে ২ টি খাবার খেয়ে বাড়িয়ে নিন সহবাসের সময়,আর খুশি রাখুন স্ত্রী কে!!

সহবাসের ১ ঘন্টা আগে যে ২ টি খাবার খেয়ে যৌন মিলনের (physical relation)সময় বাড়িয়ে নিন, স্ত্রীকে (wife) খুশি করে বীর্যপতন নিয়ন্তন রাখুন। অনেক পুরুষেরই যৌন মিলনের সময় খুব তাড়াতাড়ি বীর্য পতন হয়। কাংখিত সুখ স্ত্রী (wife) কে দিতে পারেনা। আমাদের আজকের টিউটোরিয়াল টি তাদের জন্য যাদের খুব তাড়াতাড়ি বীর্য পতন হয়। মিলনে পুরুষের অধিক সময় নেওয়া পুরুষত্বের মুল যোগ্যতা হিসাবে গন্য হয়।

যেকোন পুরুষ বয়সেরর সাথে সাথে মিলনের নানাবিধ উপায় শিখে থাকে। এখানে বলে রাখতে চাই – ২৫ বছরের কম বয়সী পুরুষ সাধারনত বেশি সময় নিয়ে মিলন (physical relation)করতে পারেনা। তবে তারা খুব অল্প সময় ব্যাভধানে পুনরায় উত্তেজিত/উত্তপ্ত হতে পারে। ২৫ এর পর বয়স যত বাড়বে মিলনে (physical relation)পুরুষ তত বেশি সময় নেয়। কিন্তু বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে পুনরায় জাগ্রত (ইরিকশান) হওয়ার ব্যাভধানও বাড়তে থাকে। তাছাড়া এক নারী কিংবা একপুরুষের সাথে বার বার মিলন করলে যৌন মিলনে (physical relation)বেশি সময় দেয়া যায় এবং মিলনে বেশি তৃপ্তি পাওয়া যায়।

মুল আলোচনায় আসি। বলছিলাম যৌন মিলনে (physical relation)অধিক সময় দেয়ার পদ্ধতি সমুহ নিয়ে… পদ্ধতি ১:- চেপে/টিপে (স্কুইজ) ধরা: এই পদ্ধতিটি (system) আবিষ্কার করেছেন মাষ্টার এবং জনসন নামের দুই ব্যাক্তি। চেপে ধরা পদ্ধতি (system)আসলে নাম থেকেই অনুমান করা যায় কিভাবে করতে হয়। যখন কোন পুরুষ মনে করেন তার বীর্য প্রায় স্থলনের পথে, তখন সে অথবা তার সঙ্গী লিঙ্গের ঠিক গোড়ার দিকে অন্ডকোষের কাছাকাছি লিঙ্গের নিচের দিকে যে রাস্তা দিয়ে মুত্র/বীর্য বহিঃর্গামী হয় সে শিরা/মুত্রনালী কয়েক সেকেন্ডর জন্য চেপে ধরবেন। (লিঙ্গের পাশ থেকে দুই আঙ্গুল দিয়ে ক্লিপের মত আটকে ধরতে হবে।)।

চাপ ছেড়ে দেবার পর ৩০ থেকে ৪৫ সেকেন্ডের মত সময় বিরতী নিন। এই সময় লিঙ্গ সঞ্চালন বা কোন প্রকার যৌন কর্যক্রম করা থেকে বিরত থাকুন। এ পদ্ধতির (system) ফলে হয়তো পুরুষ কিছুক্ষনের জন্য লিঙ্গের দৃঢ়তা হারাবেন। কিন্তু ৪৫ সেকেন্ড পুর পুনরায় কার্যক্রম চালু করলে লিঙ্গ আবার আগের দৃঢ়তা ফিরে পাবে। স্কুইজ পদ্ধতি (system)এক মিলনে (physical relation)আপনি যতবার খুশি ততবার করতে পারেন। মনে রাখবেন সব পদ্ধতির কার্যকারীতা অভ্যাস বা প্রাকটিস এর উপর নির্ভর করে।

তাই প্রথমবারেই ফল পাওয়ার চিন্তা করা বোকামী হবে। পদ্ধতি (system)২:- সংকোচন (টেনসিং): এ পদ্ধতি (system)সম্পর্কে বলার আগে আমি আপনাদের কিছু বেসিক ধারনা দেই। আমরা প্রস্রাব করার সময় প্রসাব পুরোপুরি নিঃস্বরনের জন্য অন্ডকোষের নিচ থেকে পায়ুপথ পর্যন্ত অঞ্চলে যে এক প্রকার খিচুনী দিয়ে পুনরায় তলপেট দিয়ে চাপ দেই এখানে বর্নিত সংকোচন বা টেনসিং পদ্ধতিটি অনেকটা সে রকম। তবে পার্থক্য হল এখনে আমরা খিচুনী প্রয়োগ করবো – চাপ নয়।

এবার মুল বর্ননা – মিলনকালে (physical relation)যখন অনুমান করবেন বীর্য প্রায় স্থলনের পথে, তখন আপনার সকল যৌন কর্যক্রম বন্ধ রেখে অন্ডকোষের তলা থেকে পায়ুপথ পর্যন্ত অঞ্চল কয়েক সেকেন্ডের জন্য প্রচন্ড শক্তিতে খিচে ধরুন। এবার ছেড়ে দিন। পুনরায় কয়েক সেকেন্ডের জন্য খিচুনী দিন। এভাবে ২/১ বার করার পর যখন দেখবেন বীর্য স্থলনেরে চাপ/অনুভব চলে গেছে তখন পুনরায় আপনার যৌন কর্ম শুরু করুন।

সংকোচন পদ্ধতি (system)আপনার যৌন মিলনকে(physical relation) দীর্ঘায়িত করবে। আবারো বলি, সব পদ্ধতির (system) কার্যকারীতা অভ্যাস বা প্রাকটিস এর উপর নির্ভর করে। তাই প্রথমবারেই ফল পাওয়ার চিন্তা করা বোকামী হবে। পদ্ধতি ৩:- বিরাম (টিজিং / পজ এন্ড প্লে): এ পদ্ধতিটি বহুল ব্যবহৃৎ। সাধারনত সব যুগল এ পদ্ধতির (system) সহায়তা নিয়ে থাকেন। এ পদ্ধতিতে মিলনকালে(physical relation) বীর্য স্থলনের অবস্থানে পৌছালে লিঙ্গকে বাহির করে ফেলুন অথবা ভিতরে থাকলেও কার্যকলাপে বিরাম দিন। এই সময় আপনি আপনাকে অন্যমনস্ক করে রাখতে পারেন।

আরো জানুন

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.