যাত্রীসেবা

প্রথমবারের মতো চললো স্বপ্নের মেট্রোরেল-আগামী মাসেই নগরবাসীর দেখা মিলবে স্বপ্নের মেট্রোরেল

নগরবাসীর বহু দিনের অপেক্ষার আবসান হতে যাচ্ছে আগামী মাসেই। আগামী মাসের শুরুর দিকেই দেখা যাবে মেট্রোরেলের মহড়া। মেট্রোরেলের ডিপোর ভেতরের ট্রায়াল এর কাজ শেষ হয়েছে আগেই। এখন অপেক্ষা মেইন লাইনে চলাচলের। মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ থেকে জানা যায়, আগামী মাসের শুরুর দিকেই মেট্রোরেলের পরীক্ষামূলক চলাচল শুরু হবে।

প্রথমবারের মতো উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে মিরপুরের পল্লবী পর্যন্ত চললো স্বপ্নের মেট্রোরেল। সকালে উত্তরা থেকে ট্রেনটি ছেড়ে গিয়ে পল্লবী থেকে আবার ফিরে আসে।

আগামী রোববার মেট্রোরেলের পরীক্ষামূলক চলার উদ্বোধন করবেন সড়ক যোগাযোগ ও সেতু মন্ত্রী। আনুষ্ঠানিক মেট্রোরেলের আনুষ্ঠানিক তারিখ ঘোষণার আগে প্রকল্পের কাজ ধাপে ধাপে শেষ করতে চায় বলে জানিয়েছে বাস্তবায়নকারি সংস্থা ডিএমটিসিএল।

শহরে মেট্রোর দেখা মিললো প্রথমবারের মত। নগরবাসী উচু ভবনের ছাদ থেকে দেখলো স্বপ্নের মেট্রোর চলা। যদিও এখনো মেট্রোর আনুষ্ঠানিক পরীক্ষামূলক চালনা শুরু হয়নি। যা শুরু হবে আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই।

উত্তরা দক্ষিণ স্টেশনের স্টিলের ছাদ ঢেকে দিয়েছে আকাশ। কাজ চলছে প্ল্যাটফর্মের। শ্রমিকদের ব্যস্ততা এখন পুরো মেট্রোরেল এলাকা জুড়ে। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১ দশমিক সাত তিন কিলোমিটার ভায়াডাক্ট নির্মাণ হয়ে গেছে। ভায়াডাক্টের ওপর শেষ হয়েছে সাড়ে পনের কিলোমিটার রেললাইন স্থাপনের কাজও।

এখন রেলের বৈদ্যুতিক সঞ্চালন লাইনের ওয়্যারিংয়ের কাজ চলছে। এরই মধ্যে সম্পন্ন হয়েছে ১৫ কিলোমিটারের ওয়্যারিং। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ৯ টি স্টেশনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এ অংশের বেশিরভাগ বৈদ্যুতিক লাইনের কাজ সম্পন্ন হয়ে গেছে। দিয়াবাড়িস্থ মেট্রোরেলের মূল ডিপোতে নিয়ে আসা ৪ সেট ট্রেনের পরীক্ষামূলক চালনা শুরু হবে খুব দ্রুতই।

২৪ সেট ট্রেনের মধ্যে এখন পর্যন্ত ডিপোতে পৌঁছেছে চার সেট। সেগুলোর বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা চলছে ডিপোর ভেতরের রেল লাইনে। অপেক্ষা এখন ভায়াডাক্টের ওপর পরীক্ষামূলক চালনার।

ডিএমটিসিএল এর এমডি এম এ এন সিদ্দীক ফোনে যমুনা নিউজকে জানান, এটা তো আমরা বলেছি আগস্ট মাসের মধ্যেই হবে। এটা অনেক বড় প্রোজেক্ট একটা একটা করে মাইলস্টোন ছুঁতে হবে আমাদের।

উত্তরার ৩ টি স্টেশন ও পল্লবীর প্ল্যাটফর্ম আর স্টিলের ছাদ নির্মাণ সমাপ্ত। বাকী বরোটি স্টেশনের কাজ বিভিন্ন পর্যায়ে। আগারগাঁও থেকে কারওয়ানবাজার পর্যন্ত বেশিরভাগ অংশেও বসে গেছে ভায়াডাক্ট। মেট্রোরেলের সার্বিক কাজের ৬৮ ভাগ কাজ শেষ। তবুও নতুন করে মেট্রো চালুর আনুষ্ঠানিক তারিখ ঘোষণা করতে চায় না বাস্তবায়নকারী সংস্থা ডিএমটিসিএল।

ডিএমটিসিএল এর এমডি এম এ এন সিদ্দীক ফোনে যমুনা নিউজকে আরও বলে, যেদিন ভায়াডাক্টের কাজ পুরোপুরি শেষ হবে সেদিন আমরা উদ্বোধনের তারিখ ঘোষণা করবো।

আর, আগামি অক্টোবরের ২য় সপ্তাহে পঞ্চম সেট রেল কোচ দেশে আসবে বলে জানিয়েছে ডিএমটিসিএল।

তবে ঠিক কতদিন পর যাত্রী নিয়ে চলাচল শুরু হবে, এ বিষয়ে এখনো কোন খবর মিলেনি।
এখন পর্যন্ত নয়টি স্টেশনের অবকাঠামোর কাজ প্রায় শেষ হয়ে গেছে। তারমধ্যে প্রথম পাঁচটিতে বসানো হয়েছে শেড। আর তিনটিতে বসানো হয়েছে চলন্ত সিঁড়ি।

ইতিমধ্যে, ২৪ সেট ট্রেনের মধ্যে প্রায় ৪ সেট ট্রেন এখন দেশে আছে। আরো ২০ সেট ট্রেন জাপান থেকে দেশে নিয়ে আসার প্রক্রিয়া চলছে।

প্রথমের দিকে ধীর গতিতে রেল চলবে বলে জানিয়েছেন রেল কর্তৃপক্ষ। তবে যাত্রী যাতায়াত শুরু হলে ১১০ কিমি গতিতে রেল চলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.