ফটোগ্রাফি

শীতকালে কিভাবে ছবি তুলবো 2021

শীতকাল হল ফটোগ্রাফারদের জন্য খুবই আকাংখিত একটা সময়। কুয়াশার জন্য ল্যান্ডস্কেপ থেকে শুরু করে স্ট্রিট এবং স্টিল লাইফ শট গুলো হতে পারে অনেক বেশী আকর্ষনীয়। আমি আজকে এই পোস্টটি লিখছি কুয়াশার মাঝে ফটোগ্রাফীর কিছু টিপস নিয়ে – কিভাবে বা কিরকম করে তুললে ছবিগুলো আরো বেশী ভালো লাগতে পারে সেটা জানানোই মূলত এই আর্টিকেলের উদ্দেশ্য।

ডেপথ:

শীতের সকালের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হল কুয়াশা। সেটা হতে পারে হালকা বা ঘন। কিন্তু এই কুয়াশাকে ব্যবহার করে তোমার ছবিটা হতে পারে অনেক বেশী আকর্ষনীয়। কুয়াশার কারনে ডেপথ অব ফিল্ডের খুব ভালো ব্যবহার হতে পারে তোমার সাবজেক্ট কুয়াশার মাঝ থেকে বের হয়ে আসছে, বা কুয়াশার মাঝে মিলিয়ে যাচ্ছে এমন ছবি গুলোতে। আমি ভালো কুয়াশা পেলে এক জায়গায় অনেকক্ষন দাঁড়িয়ে থাকি যতক্ষন না আমার সাবজেক্টে কুয়াশায় মিলিয়ে যায়, ততক্ষন পর্যন্ত। এই সময় আরেকটা সাপোর্টিং এলিমেন্টের ব্যবহার ছবিকে করে তুলতে পারে ড্রামাটিক। তাতে তোমার সাবজেক্টের দূরত্ব, দৃশ্যের গভীরতা বোঝা অনেক সহজ হয়।

ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতার বিচারকের ডেস্ক থেকে লেখা :

Barguna E-commerce & Entrepreneurs (BEE) এবারের ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতার জন্য ‘শীতকাল (Winter)’ থিম হিসেবে নির্ধারণ করেছে। বাংলাদেশ ষড়ঋতুর দেশ, কিন্তু এর মধ্যে বাস্তবিক ক্ষেত্রে তিনটি ঋতু গ্রীষ্ম, বর্ষা ও শীতকাল কে মৌলিক ভাবা যায় কেননা এ ঋতু গুলোর প্রভাবই আমাদের ওপর বেশি । মৌলিক রং কে ঘিরে যেমন অনেক রং এর সেড তৈরি হয়, তেমনি গ্রীষ্ম, বর্ষা, শীতকে ঘিরেই অন্যান্য ঋতুর আবর্তন।
লক্ষ্য করা যায়, শীতকালে আমাদের জীবনধারায় ও প্রকৃতি জুড়ে একটা দৃশ্যমান পরিবর্তন আসে। সে হিসেবে এবারের প্রতিযোগীতার থিম ‘শীতকাল’-এর ওপর প্রচুর ধরণের ছবি তোলার সুযোগ ছিল। শীতকালের ছবি বলতে শুধুমাত্র কুয়াশা নির্ভর হতে হবে, এমন নয় কিন্তু। শীতের সকালে কেউ একজন গরম পোশাকে বন্দি হয়ে চাদর মুড়িয়ে চায়ের কাপে চুমুক দিচ্ছে এমন পোর্টেট, কোন একজন লেপ তোষক রোধে শুকাতে দিচ্ছে বা কেউ গোছলের আগে তেল মেখে রোদ পোয়াচ্ছে বা কেউ একজন খেজুর রস সংগ্রহ করে শীতের সকালে দুর প্রান্তে হেটে যাচ্ছে ,
খেজুর রস জ্বাল দিয়ে গুর তৈরি করছে এমন জীবনযাত্রা ভিত্তিক কত ছবিই না শীতকে নির্দেশ করে! শীতের ছবি বলতে এমন ও হতে পারে শহরের রাস্তায় গরম পোশাকের পসড়া সাজিয়ে বিক্রি করছে দোকানীরা বা শীতের পিঠা বিক্রির মৌসুমী দোকানগুলোর ছবি, হতে পারত আগুন জ্বেলে তাপ ভাগাভাগি করার মত স্ট্রিট ভিত্তিক ছবি। শীতের ছবি হতে পারে পাখিদের খেজুর গাছে বসে রস খাবার ছবি বা শীতকালীন ফল খাবার ছবির মত ওয়াইল্ড লাইফ ছবি।
শিশির ভেজানো শীতকালীন সবজির মাঠ, শীতের সকালে মাঠে কৃষকদের জীবন, সরিশার ক্ষেতের ছবি, এরকম কতকিছু শীতকালের গল্প বলে। শীত কিন্তু রুক্ষতাও নিয়ে আসে, শীতে শিশির সিক্ত কুয়াশা যেমন মায়াবী রুপ নিয়ে আসে, সাথে কিন্তু গাছদের পত্র ঝরা রূপ ও শীতেরই অবদান। ঠোঁট ফাটা রূক্ষ কোন মুখের ছবিও কিন্তু হতে পারত শীতকালের ছবি। চোখ খুলে একটু চারপাশে তাকালেই দেখা যাবে শীতের ওপর কত বিষয় আছে। একটু ভাবা, চোখ খুলে চারদিক দেখা; এটাই ফটোগ্রাফির অন্যতম বিষয়। এ গুনই একজন ফটোগ্রাফারকে অন্যজন থেকে আলাদা করে।

মুড:

শীতের সকালে মানুষ যখন রাস্তা দিয়ে হেঁটে যায় তখন তাদের যে অ্যাপিয়ারেন্স, ড্রেস-আপ, এবং এক্সপ্রেশন সেটা একদমই অন্যরকম। সেজন্য শীতের সকালে খুব ভালো একটা সাবজেক্ট হতে পারে মানুষের এক্সপ্রেশন তোলা, অথবা মনে করো ভোরবেলা ঘন কুয়াশার মাঝেও কর্মব্যস্ত জীবনের একটা স্ন্যাপশট। রাস্তাঘাটে হয়তো দেখবে কয়েকজন আগুনের চারপাশে দাঁড়িয়ে আছে, কুয়াশার কারনে খেয়াল করবে যে তাদের গায়ে আলোর রিফ্লেকশনটা একদমই অন্যরকম – চেষ্টা কর সেটা তুলে ধরার। অথবা কারো জুবুথুবু হয়ে শীত কাটানোর চেষ্টা হতে পারে তোমার সাবজেক্ট

এক্সট্রা অর্ডিনারী ইন দ্য অর্ডিনারী:

প্রতিটা সিজনেই মানুষের, প্রকৃতির এবং পারিপার্শি্বক দৃশ্যের একটা ব্যপক পরিবর্তন হয়। গরমকালের খুব সাধারন একটা দৃশ্যও শীতকালে হয়ে উঠতে পারে অসাধারন। আমি বলবো তুমি তুলতে থাকো, শাটার কাউন্ট হিসেবে করে ছবি তোলা বন্ধ কোর না। নিজের পার্সপেকটিভ পরিবর্তন করো, অ্যাংগেল চেঞ্জ করো, তোমার কমফোর্ট জোন থেকে বের হয়ে আসো – একটু অন্যভাবে তোলার চেষ্টা করো। তাহলেই একসময় দেখবে যে অর্ডিনারী জিনিসের মাঝ থেকেও তুমি এক্স্ট্রা অর্ডিনারী কিছু বের করে আনতে পারছো।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.