রূপচর্চা

শীতের দিনে ত্বকের যত্ন-শীতে ত্বকের যত্নে ঘরোয়া উপায়-Beauty।

শীতকালে ত্বককে ময়শ্চারাইজড রাখা অত্যন্ত জরুরি। এর ফলে ত্বকের প্রাকৃতিক আর্দ্রতা বজায় থাকে। নারকেল তেল, ক্যাস্টর তেল, অলিভ তেল, দইয়ের ঘোল ও শশা প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করলে সুফল মেলে। সাধারণত শীতকালে আমরা প্রত্যেকেই কম পরিমাণে জল পান করি।

শীতের দিনের সবচেয়ে বড়ো সমস্যা হল ত্বকের রুক্ষতা। শিতল হিমেল হাওয়া ত্বকে লাগতেই  কমবেশি সবারই ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। কনকনে এ সময়ে  ত্বক ফেটে যাওয়ার প্রবণতাও দেখা দেয়। তবে যাদের ত্বক এমনিতেই একটু শুষ্ক ও রুক্ষ প্রকৃতির, অন্যদের চেয়ে তাদের সমস্যা একটু বেশিই হয় এ সময়টাতে।

ঠোঁটে পেট্রোলিয়াম জেলি মাখা
শীতের দিনে ঠোঁট ফাটা খুব স্বাভাবিক, কিন্তু ঠোঁট ফাটলেই যদি পেট্রোলিয়াম জেলি মাখতে থাকেন, তাতে খুব একটা উপকার পাবেন না। পেট্রোলিয়াম জেলি সাময়িক আরাম দিলেও আখেরে ঠোঁট আরও শুকনো করে দেয়। বদলে কোনও ভারী ময়শ্চারাইজ়ার মাখলে ঠোঁট ফাটা কমাতে পারবেন। নিয়মিত দুধের সর বা ঘি মাখলেও ঠোঁট ফাটা কমে।

স্কিনকেয়ার মেনে চলা
গরমের দিনে যে স্কিনকেয়ার রুটিন মেনে চলেন, তা কিন্তু এই শীতে চলবে না । শীতের এই সময়ে  ব্যবহার করুন ময়শ্চারাইজ়ার যুক্ত কোমল ক্লেনজ়ার। ওয়াটার-বেসড ময়শ্চারাইজ়ারের বদলে বেছে নিন ভারী ময়শ্চারাইজ়ার। বারবার মুখ ধোবেন না, তাতে ত্বক আরও শুকনো লাগবে। সপ্তাহে একদিন এক্সফোলিয়েট করুন।

গরম পানিতে গোসল

গোসলের পানি  যদি অতিরিক্ত গরম হয় তবে  সেটা  আপনার ত্বকের উপরের প্রাকৃতিক তেলের আবরণ একেবারে নষ্ট করে দেয়, ফলে ত্বক খুব তাড়াতাড়ি রুক্ষ হয়ে যায়, ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে। তাই চেষ্টা করুন হাল্কা  গরম পানিতে  গোসল করতে।  গোসলের সেঙ্গ সঙ্গে সারা শরীরে হাইড্রেটিং ক্রিম মেখে নেবেন যাতে ময়শ্চারাইজার ত্বকের গভীরে ঢুকতে পারে।

মাথার ত্বকে নারিকেন তেল
মাথার তালুর ত্বকে শীতকাল ছাড়াও অনেকেই শুষ্কতা অনুভব করেন। এ ক্ষেত্রে গোসলের আগে এক্সট্রা ভার্জিন নারিকেন তেল, ভিটামিন-ই তেল, আলমন্ড তেল ও রিগ্যান তেল সামান্য গরম করে মাথার ত্বকে আঙুলের ডগা দিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করুন। তারপর শ্যাম্পু করে নিন। এতে উপকার পাওয়া যাবে।

 সানস্ক্রিন না মাখা
শীতের দিন বলে অনেককেই দেখা যায় সানস্ক্রিন মাখা বাদ দিতে সেটা একদমই করা যাবে না।
তাপমাত্রা যতই কম থাক, তাতে অতিবেগুনী রশ্মির সক্রিয়তা একটুও কমে না এবং তা একইভাবে ত্বকের ক্ষতি করে। তাই বাড়ির বাইরে পা দেওয়ার আগে অবশ্যই সানস্ক্রিন মাখবেন।

ত্বকের জ্বলুনি ভাব দূর করতে অলিভ ওয়েল :
অলিভ ওয়েল সাধারণত সব ধরনের ত্বকের পক্ষেই খুব কার্যকর৷ এর মধ্যে রয়েছে পর্যাপ্ত ফ্যাটি অ্যাসিড ও অ্যান্টিঅক্সিডান্ট যা শুধু আপনার মুখই নয় বরং পুরো শরীরের ত্বকের যত্নে অপরিহার্য ভূমিকা রাখে। গোসলের আধ ঘণ্টা আগে মুখে ও পুরো শরীরে অলিভ ওয়েল মেখে নিন৷ তার পর কুসুম গরম পানিতে গোসল সেরে লাগিয়ে নিন এক্সট্রা ভার্জিন নারিকেল তেল। এ ক্ষেত্রে অ্যালোভেরা খুব উপকারী। অ্যালোভেরা কেটে শাঁসটা বের করে ত্বকে লাগালে খুব দ্রুত আপনার ত্বকের জ্বলুনি ও চুলকানি কমে যাবে।

শীতে উজ্জ্বল ত্বক চাই? রইল যত্ন নেওয়ার ঘরোয়া টিপস

শীতে ত্বকের যত্ন গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। এই সময় ত্বক হয়ে পড়ে বেশি স্পর্শকাতর, খসখসে ও প্রাণহীন। শীতের দাপটে প্রাকৃতিক ঔজ্জ্বল্যও হারিয়ে ফেলে আমাদের ত্বক। তখন প্রয়োজন হয় ত্বকের বিশেষ যত্নের। শীতের দাপটে স্বাভাবিক প্রাকৃতিক জৌলুস হারিয়ে ফেলে ত্বক। এই সময়ে প্রয়োজন বিশেষ যত্নের ত্বকচর্চা, যার কিছু ঘরোয়া টিপস সমস্যার চটজলদি সমাধানে কাজে দেয়।

  • শীতকালে ত্বককে ময়শ্চারাইজড রাখা অত্যন্ত জরুরি। এর ফলে ত্বকের প্রাকৃতিক আর্দ্রতা বজায় থাকে। নারকেল তেল, ক্যাস্টর তেল, অলিভ তেল, দইয়ের ঘোল ও শশা প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করলে সুফল মেলে।
  • সাধারণত শীতকালে আমরা প্রত্যেকেই কম পরিমাণে জল পান করি। শরীরে জলের ঘাটতির কারণেও ত্বক শুকনো ও রুক্ষ হয়ে পড়ে। লক্ষ্য রাখবেন, শীতে যাতে শরীরে যথেষ্ট জলের অভাব না হয়। জলের পরিমাণ বাড়ানোর জন্য অল্প গরম জল পান অভ্যাস করলে সুফল দেয়।
  • শীতকালে গরম জলে স্নান করলে মাংশপেশি স্বস্তি পায়। তবে মুখের ত্বকে তা ব্যবহার না করাই ভালো। সে ক্ষেত্রে গরম বা ঠাণ্ডা জলের পরিবর্তে সামান্য গরম জল দিয়ে মুখ ধোওয়া উচিত।
  • প্রতি রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে ময়শ্চরাইজার দিয়ে মুখের ত্বক মালিশ করতে ভুলবেন না। এর ফলে ত্বক কোমল ও উজ্জ্বল হবে।

আরো দেখুন

ঢাকা টু পোড়াদহ ট্রেনের সময়সূচী, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা-2021

মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, টিকেটের মূল্য ও ভাড়ার তালিকা 2021

বাংলাদেশি টাকায় বিভিন্ন দেশের আজকের টাকার রেট,১২ ফেব্রুয়ারি

আপনার বিকাশ একাউন্ট থেকে যা করবেন না

Infinix Note 11 Pro Price in Bangladesh-razuaman.com

Leave a Reply

Your email address will not be published.