Uncategorized

৫০০ কেজি ওজনের নারী এলেন ভারতে /পৃথিবীর10 মোটা ব্যক্তিদের তালিকা

অনেকের মতে তিনিই বিশ্বের সব চেয়ে স্থূলকায়া নারী৷ তাঁর ওজন প্রায় ৫০০ কেজি৷ মিশর থেকে তিনি এসেছেন মুম্বাই-এর একটি হাসপাতালে৷ রোগা হতে চান তিনি৷ তাঁর এই অস্বাভাবিক স্থূলত্ব নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা৷

গত শনিবার মিশরের আলেকজান্দ্রিয়া থেকে মুম্বাইয়ের হাসপাতালে এসে ভর্তি হয়েছেন বিশ্বের সবচেয়ে মোটা নারী হিসেবে পরিচিত ইমান আহমেদ৷ তাঁর এই অস্বাভাবিক স্থূলতা একটা জটিল রোগবিশেষ, যা নিরাময় করার সুযোগ-সুবিধা কম জায়গাতেই আছে৷ চিকিৎসার খরচও প্রচুর৷ আলেকজান্দ্রিয়া থেকে মুম্বাইতে আনতে ঘাম ছুটে গেছে হাসপাতাল কর্মীদের৷

গত ১৩ বছর ধরে তিনি বিছানায়৷ নড়াচড়া করার ক্ষমতাটুকুও নেই৷ ইমানকে প্রথমে আনা হয় একটি বিশেষ মালবাহী বিমানে৷ বিমান থেকে ক্রেনে করে নামিয়ে তোলা হয় এক বিশেষ ট্রাকে৷ তারপর নিয়ে যাওয়া হয় মুম্বাই-এর চার্নি রোডের সাইফি হাসপতালে৷ হাসপাতালের দোতলায় ইমানের জন্য তৈরি বিশেষ খাটে শোয়ানোও হয় ক্রেনে করে৷ ইমানের চিকিৎসক ড. মুফাজজল লাকড়াওয়ালা৷ মুম্বাইয়ের হাসপাতাল পর্যন্ত আনতেই খরচ হয় প্রায় ৮০ লাখ টাকা, জানান ড. লাকড়াওয়ালা৷

তিনি জানান, ৩৫ বছর বয়সি ইমানের চিকিৎসার জন্য  http://মাসখানেক ধরে চলবে বিভিন্ন পরীক্ষানিরীক্ষা৷করা হবে নানা ধরণের টেস্ট৷ দেখা হবে লেপটিনের মতো জেনেটিক ত্র্রুটি আছে কিনা৷ ইমানের  জেনেটিক টেস্টের রিপোর্ট দেখে পরবর্তী চিকিত্সার পরিকল্পনা করা হবে৷ দেহের জলীয় পদার্থ নিষ্কাশনেও সময় লাগবে চার সপ্তাহের মতো৷ চিকিৎসাসূচির মধ্যে আছে দুটো অপারেশন, ডায়েট প্ল্যান, ফিজিওথেরাপি ইত্যাদি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

পৃথিবীর কিছু পরিচিত মোটা ব্যক্তিদের তালিকা পরিচয় ও ছবি দেখুনঃ 1

পৃথিবীতে সবচেয়ে মোটা ব্যক্তি কে

1/ পুরুষ, ওজন ৬৩৫ কেজি, ৬ ফুট ১ ইঞ্চি

যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে বাসিন্দা তিনি। এখনও পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ওজনের মানুষ তিনিই। শারীরিক সমস্যার জন্য ১৯৮৩ সালে তিনি মারা যান।

2/ পুরুষ, ওজন ৬১০ কেজি, ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি

জন্ম ১৯৯১, এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশী ওজনের জীবিত ব্যক্তি। চলাফেরাতে অক্ষম হওয়ায় টানা ২ বছর সৌদি আরবের এই যুবক বাড়িতেই থাকতেন। পরে জানলা ভেঙে ক্রেনে করে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

3/পুরুষ, ওজন ৫৯৭ কেজি, ৬ ফুট ৫ ইঞ্চি

২০০৬ সালে গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ডে নাম লেখান। ১০ বছর তিনি শয্যাশায়ী হয়ে পড়েছিলেন। পরে সার্জারি করে ৩০০ কিলো ওজন কমিয়েছিলেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৪৮ বছর বয়সে ২০১৪ সালে তিনি মারা যান।

৪। জুয়ান পেদ্রো ফ্রাঙ্কো সালাসঃ পুরুষ, ওজন ৫৯৫ কেজি

উত্তর মেক্সিকোর বাসিন্দা তিনি। বিশ্বের সবচেয়ে মোটা ব্যক্তি হিসেবে ২০১৬ সালে গিনেস রেকর্ডে নাম লেখান। কোন দুর্বোধ্য রোগে প্রতি বছর তার ওজন প্রায় ১০ কেজি করে বৃদ্ধি পেতো। ৬ বছরে ৬০ কেজি এবং ১৭ বছরে ২০০ কেজি ওজন হয় তার দেহের। তবে ২০১৮ সালে অস্ত্রোপাচার করে তার ওজন ৩৭৫ কেজি করে দেওয়া হয় এবং পাকস্থলী ছোট করে দেওয়া হয়, এখনো বেঁচে আছেন তিনি।

5/নারী, ওজন ৫৪৪ কেজি, ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি

রেকর্ড অনুযায়ী তিনিই মেয়েদের মধ্যে এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ওজনের মানুষ। তিনি ১৯৯৪ সালে মারা যাওয়ার পর জানলা ভেঙে তাঁকে বের করতে হয়।

৬। রবার্ট বালটারঃ পুরুষ, ওজন ৫৪৪ কেজি,

তিনি ২০০৬ সালেও ৪০৮ কেজি ছিলেন। অতিরিক্ত স্থুলতার কারণে ২০১৫ সালে তিনি ইন্তিকাল করেন।

7/ পুরুষ, ৫৪৩ কেজি, ৫ ফুট ১০ ইঞ্চি

কোনওরকম ওয়ার্কআউট না করা এবং জাঙ্ক ফুড প্রেমীদের সবথেকে বড় উদাহরণ বোধহয় ওয়াল্টার। ৫৪৩ কিলোর ওয়াল্টার নিজের বাথরুমের দরজাতেই আটকে গিয়েছিলেন। মাত্র ১২ বছরই তাঁর ওজন ছিল ১০০ কিলো। একাধিক বার সার্জারি করিয়েও তাঁর ওজন কমানো যায়নি। ২০১৩ সালে তিনি মারা যান।

৮। মাইকেল ওয়াকারঃ পুরুষ, ৫৩৮ কেজি, ৬ ফুট ২ ইঞ্চি

যুক্তরাষ্ট্রে লোয়া শহরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। ৪৪ বছর বয়সেই তার ওজন ছিলো ১৬৭ কেজি। কিন্তু এরপরে তার ওজন শুধু বৃদ্ধিই পেতে থাকে।

9/ নারী, ওজন ৫০০ কেজি।

তিনি একজন মিশরীয় নারী। অতি ওজনের জন্য শারীরিক জটিলতায় ২০১৭ সালে মারা গিয়েছেন।

10/ পুরুষ, ৪৯৯ কেজি, ৬ ফুট

ওবেসিটির এক ব্যতিক্রমী ঘটনা। ৪৯৯ কিলোর মাইকেল ১৯৯০ সালে ৪০০ কিলো ওজন কমিয়ে বিশ্ব রেকর্ড করেছিলেন। কয়েক বছরের মধ্যেই তিনি আবার পূর্বাবস্থায় ফিরে যান।

11/ পুরুষ, ৪৮৬ কেজি, ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি

‘হাফ টন ম্যান’ তথ্যচিত্রটি তাঁকে নিয়েই তৈরি। ওজন ৪৮৬ কিলো। ৭ বছর তিনি শুধুমাত্র বিছানায় শুয়ে কাটিয়েছেন। তবে সার্জারির পরে ওজন কমে এখন অনেকটাই সুস্থ তিনি।

১২। রিকি ন্যাপুটিঃ ওজন ৪০০ কেজি

প্রশান্ত মহাসাগরের গুয়াম দ্বীপে রিকি ন্যাপুটি নামে এই পুরুষ বাস করতেন। তিনি বিছানা থেকে নড়তেই পারতেন না। তিনিও অরিরিক্ত স্থুলতার জন্য ২০১২ সালে মাত্র ৩৯ বছর বয়সে মারা যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.